সিডনিতে নির্বাচন প্রার্থী মাসুদ চৌধুরী’র সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

সিডনির স্থানীয় ক্যাম্বেলটাউন সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে লেবার পার্টি থেকে নির্বাচন প্রার্থী মাসুদ চৌধুরী আজ ১৪ নভেম্বর (রবিবার) দুপুর সাড়ে বারোটায় মিন্টুর খাদেম’স ডাইন এ এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেন।

এই সাংবাদিক সম্মেলনে বাংলাদেশী কমিউনিটির সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ ও স্থানীয় লেবার পার্টির সদস্যরা অংশ গ্রহন করেন। নির্বাচনে প্রার্থী মাসুদ চৌধুরী সমগ্র বাংলাদেশী ভোটারদের ব্যালট পেপারের প্রথম লাইনে তার দল লেবার এর বক্সে ১ নম্বর বসিয়ে ভোট দিতে সনির্বদ্ধ অনুরোধ জানান।

কায়সার আহমেদের সভাপতিত্বে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে প্রার্থী মাসুদ চৌধুরী বলেন, আমি গত পাঁচ বছর কাউন্সিলর থাকাকালীন সময়ে বিভিন্ন বাংলাদেশী মেলার আয়োজন, অস্ট্রেলিয়ান মুসলিম ওয়েলফেয়ার সেন্টার, ইসলামিক এডুকেশন সেন্টার ম্যাকুরিফিল্ড ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের জন্য উপাসনালয় প্রতিষ্ঠায় সহায়তা, চারটি শিশু পার্ক, তিনটি পুরাতন পার্কে পাবলিক টয়লেট স্থাপন, ২০১৭ সাল থেকে ক্যাম্বেলটাউন সিটি কাউন্সিলে আনুষ্ঠানিকভাবে ২১ শে ফেব্রুয়ারি উদযাপন ও বাংলাদেশী পতাকা উত্তোলন, এরিকা লেনে মাল্টি কালচারাল ফেস্টিভেল, বাংলা আর্ট প্রদর্শনী, মিন্টু ফিস্ট (বিভিন্ন দেশের গান), রমজানে কাউন্সিলের অর্থায়নে ইফতারের আয়োজন, ম্যাকুরি ফিল্ড স্টেশনে অতিরিক্ত ৩৮ টি কার পার্ক, ওপেন এয়ার সিনেমায় তিনটি বাংলা চলচিত্র প্রদর্শনসহ বিভিন্ন সেবামূলক কাজের সাথে আমি এবং আমার লেবার টীম কাজ করেছি।

আগামীবার আবার নির্বাচিত হলে কি কি কাজ করবেন, সাংবাদিকরা এই প্রশ্নের জবাবে মাসুদ চৌধুরী বলেন, আপনারা যদি আমাকে এবং আমার দল লেবারকে আগামী তিন বছর কাউন্সিলে আপনাদের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেন তাহলে আমরা জাতীয় স্মৃতিসৌধ স্থাপন ও মুসলমানদের জন্য গোছলখানা (ফিউনারেল পার্লার), নির্মাণের আপ্রান চেষ্টা করবো।

বাংলাদেশের আদলে একটি শহীদ মিনার অথবা জাতীয় স্মৃতিসৌধ কোনটা স্থাপনের পরিকল্পনা আপনার আছে, সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সেটা মাল্টিকালচারাল ও বাংলাদেশী কমিউনিটির সাথে আলোচনা সাপেক্ষে পরিকল্পনা করা হবে।

কায়সার আহমেদের দেয়া মোধ্যাহ্ন ভোজে সবাইকে আপ্যায়নের পর সাংবাদিক সম্মেলনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।