সাম্প্রদায়িক হামলার নিন্দা জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন

শারদীয় দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক হামলা ও কোরআন অবমানকারীদের গ্রেফতার এবং শাস্তি দাবি জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশ জার্নালিস্টএসোসিয়েশন। এক বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মাদ আবদুল মতিন ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ বলেন, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ধর্মান্ধতা ও বিদ্বেষত্মাকভাবে কোনো ধর্মকে অবমাননা ইসলাম সমর্থনকরেনা। সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে রুখে দাঁড়াতে হবে। সকল ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে একে অপরের প্রতি সহমর্মিতা ওসহযোগিতার মনোভাব পোষণ করাই একান্ত কাম্য। সকল ধরণের মনুষ্যত্বকে বিসর্জন দিয়ে এরূপ নৃশংসতা পুরোপুরিভাবেঅগ্রহণযোগ্য।

বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য বাংলাদেশকে নিরাপদ আবাসভূমি হিসাবে গড়ে তুলতে হবে। সুদূরপ্রবাসে আমরা মুসলমানরাও সংখ্যালঘু, তাই বলে সংখ্যাগরিষ্ঠরা আমাদের উপর হামলা করবে? কিন্তু দু:খের বিষয় হলো শুধুবাংলাদেশ নয়, অনেক দেশই আজ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য নিরাপদ আবাসভূমি নয় যা অত্যন্ত দু:খজনক। ধর্মকেঅপব্যবহারের যে কোনো ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকা, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়বিদ্বেষী সকল অপশক্তিকে প্রশ্রয় না দেয়া, জঙ্গিধর্মভিত্তিক শক্তির রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক আধিপত্যের বিরুদ্ধে নীতিনিষ্ঠভাবে সংগ্রাম পরিচালনা করাআমাদের জন্য জরুরি হয়ে পড়ছে। রাষ্ট্র ও জনসমাজকে সম্মিলিতভাবে আজ এ কাজে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। ধর্মীয় গ্রন্থেরঅবমাননা ও নাশকতামূলক কাজের জন্য অপরাধীদের শাস্তি দিতে হবে।