জন্মভুমি টেলিভিশনের ঈদ অনুষ্ঠানের বিশেষ আয়োজন

গত ২৫ এপ্রিল (রবিবার) সিডনির ওআইলি পার্কে জন্মভুমি টেলিভিশনের ঈদ আনন্দমেলার রেকর্ডিং শুরু হয়। হরিজন থিয়েটারের খোলা মঞ্চে এই রেকর্ডিং এ সিডনি প্রবাসীরা ঈদের গান, ফ্যাশন শো, কবিতা, একক গান ও দলীয় নাচ সহ নানা আয়োজনে অংশ গ্রহন করে।

এছাড়াও সিডনির মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ও তাদের সহধর্মিণীরা ঈদের আনন্দ মেলায় অংশ গ্রহন করেন। মঞ্চে সহযোগিতা করেন জন্মভুমি টেলিভিশনের নির্বাহী পরিচালক ডাঃ আসাদ সামস ও সিডনি প্রেস ও মিডিয়া কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল মতিন।

ঈদ আনন্দ মেলার পরিকল্পনা ও উপস্থাপনা করেছেন আবিদা আসওয়াদ। মঞ্চ সজ্জার সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন ডাইরেক্টর প্রোটকল আসওয়াদ বাবু ও ইভেন্ট ডাইরেক্টর কানিতা আহমেদ।

জন্মভুমি টেলিভিশনের চেয়ারম্যান আবু রেজা আরেফিন জানান, আমরা দর্শকদের জন্য প্রতি বছর নুতন আঙ্গিকে ঈদ আনন্দ মেলা উপহার দিয়ে থাকি। এই বছরও তার ব্যতিক্রম ঘটছে না। এবারের ঈদ আনন্দ মেলায়ও অনেক চমক রয়েছে। তিন দিন ব্যাপী রয়েছে ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানমালার বেশিরভাগ রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। তিনি জন্মভুমি টেলিভিশনের দর্শকদের ঈদের দিন ও পরবর্তী দুইদিন ব্যাপী প্রচারিত ঈদ অনুষ্ঠানমালা দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ঈদের আনন্দমেলাটি সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য যারা সহযোগিতা করেছেন তিনি তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

রমজানের শিক্ষা ও তাৎপর্য আলোচনার মধ্য দিয়ে আইপিডিসি’র ইফতার মাহফিল সম্পন্ন

ইসলামিক প্র্যাকটিস এন্ড দাওয়াহ সার্কেল, এনএসডব্লিউ শাখার উদ্যোগে গত ২৩ এপ্রিল (শুক্রবার) সিডনির মুসলিম কমিউনিটি সহ অন্যান্য কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিদের অংশগ্রহণে একটি ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়। রিজেস প্যারামাটা হোটেলের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে বক্তারা পবিত্র রমজান মাসের শিক্ষা ও তাৎপর্য সম্পর্কে মতবিনিময় করেন।

অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশী মুসলিম কমিউনিটির বৃহত্তম সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠন ইসলামিক প্র্যাকটিস ও দাওয়াহ সার্কেল (আইপিডিসি) মূলত কমিউনিটির মুসলিম সদস্যদের মাঝে সারা বছর জুড়েই ইবাদত, ইসলামী শিক্ষা ও সামাজিক সেবা নির্ভর নানা কর্মসূচী পালন করে থাকে। পবিত্র রমজান মাসে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন স্টেটের নানা এলাকায় স্থানীয়ভাবে ইফতার মাহফিল আয়োজনের মাধ্যমে আইপিডিসির সক্রিয় সদস্য ও শুভানুধ্যায়ীরা ইসলামী আলোচনা ও সম্মিলিত ইফতার পালন করে থাকেন। এর মাঝেই নিউ সাউথ ওয়েলস স্টেট শাখার উদ্যোগে গত শুক্রবারের অনুষ্ঠানটি মূলতঃ আয়োজন করা হয়েছিলো অস্ট্রেলিয়ান বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর সাথে সম্পর্ক স্থাপন ও উন্নয়নের উদ্দেশ্যকে সামনে নিয়ে।

সিডনির সেন্ট মেরিস মসজিদের সম্মানিত ইমাম আবু হোরায়রার পবিত্র কোরআন শরীফ থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে ইফতার মাহফিল উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভার সূচনা হয়। অতিথিদের সংক্ষিপ্ত ও শুভেচ্ছা বক্তব্যের সমাহারে অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন চার্লস স্টার্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষক শিবলী আবদুল্লাহ। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইপিডিসি এনএসডব্লিউ শাখার সভাপতি কামাল মাহমুদ।

ইফতার মাহফিলে উপস্থিত অতিথিদের সামনে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম প্রধান আলেম এবং অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইমামস কাউন্সিলের সভাপতি শায়খ শাদী আল সুলায়মান, নিউ সাউথ ওয়েলস স্টেটের বিরোধী দলীয় সংসদীয় নেতা জোডি মেককেই এমপি, স্টেটের সংসদ সদস্য ডেভিড শুব্রিজ এমএলসি, সিডনি এলায়েন্সের চেয়ারপার্সন মেরি ওয়াটারফোর্ড, অস্ট্রেলিয়ান সিনেটের প্রাক্তণ সদস্য লী রিয়ানন, অস্ট্রেলিয়ার গ্র্যান্ড মুফতির প্রতিনিধি শায়খ আদীদ আল রুবাই, কলাম্বান সেন্টার ফর খ্রিশ্চিয়ান-মুসলিম রিলেশনস এর ডাইরেক্টর রেভারেন্ড প্যাট্রিক ম্যাকার্নি, সিডনির সুপরিচিত তরুণ আলেম শায়খ জালাল শামি, বিশপ অফ প্যারামাটা ভিনসেন্ট লং, আইপিডিসি’র মাল্টিকালচারাল এফেয়ার্স সেক্রেটারী ড. মাজহারুল তালুকদার প্রমুখ। এছাড়াও আয়োজক সংগঠন আইপিডিসির পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন আইপিডিসির কেন্দ্রীয় সভাপতি এসোসিয়েট প্রফেসর ড. রফিকুল ইসলাম এবং কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মনির হোসাইন।

অতিথিদের বক্তব্যে পবিত্র রমজান মাসের অপরিসীম গুরুত্ব, ইসলামে সামাজিক সুবিচার ও মানবিক সাম্যের শিক্ষা, বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন মুসলিম জনগোষ্ঠীর নিপীড়ন ও বৈষম্যের শিকার হওয়া, রোযা পালনের মাধ্যমে একজন মুসলিমের জ্য উন্নত চরিত্র গঠনের সুযোগ ইত্যাদি নানা প্রসঙ্গ উঠে আসে।

আইপিডিসি’র এই ইফতার মাহফিলে উপস্থিত অন্যান্য বিশিষ্ট সামাজিক ব্যক্তিত্বের মাঝে এদিন আরও উপস্থিত ছিলেন ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটির শিক্ষক ড. জান আশিক আলী, অস্ট্রেলিয়ায় সউদি আরব দুতাবাসের দাওয়াহ ম্যানেজার আনওয়ার আলসুউলি, চ্যারিটি রাইট অস্ট্রেলিয়ার চেয়ারম্যান ড. নাঈম ইসলাম, অস্ট্রেলেশিয়ান মুসলিম টাইমসের প্রধান সম্পাদক জিয়া আহমেদ, চ্যারিটি অস্ট্রেলিয়া ইন্টারন্যাশনালের প্রেসিডেন্ট ওয়াজাহাত আলী রানা, ইসলামিক ফোরাম ফর অস্ট্রেলিয়ান মুসলিমসের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. কাশিফ আজিজ, ট্রিবিউন ইন্টারন্যাশনাল সম্পাদক সাইয়েদ আতিকুল হাসান, সুপ্রভাত সিডনির প্রধান সম্পাদক আবদুল্লাহ ইউসুফ শামীম, সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলের সেক্রেটারী মুহাম্মদ আবদুল মতিন, হালাল অস্ট্রেলিয়ার প্রেসিডেন্ট মারুফ খান, অস্ট্রেলিয়ান ইসলামিক মিশন ইয়ুথের প্রেসিডেন্ট ওমর আল জামাল, সিডনি এলায়েন্স বোর্ড মেম্বার সানদিপ কিরপালানি, সিডনি এলায়েন্সের মুসলিম কমিউনিটি ম্যানেজার শায়খ আবদুল নাসের প্রমুখ সহ সিডনি এলায়েন্স, ট্রান্সপোর্ট ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন, কমিউনিটি মাইগ্রেট রিসোর্স সেন্টার, এলাইড ইন্ডাস্ট্রিজ এনএসডব্লিউ ইউনাইটেড ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন, হিউম্যান এপিল, অস্ট্রেলিয়ান ইসলামিক মিশন, পাঞ্চবোল মসজিদ, আল কাউসার, মার্সি মিশন, অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল ইমাম কাউন্সিল প্রভৃতি সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ। (প্রেস বিজ্ঞপ্তি)