সিডনির বিকৃত স্মৃতিসৌধ নিয়ে সর্বদলীয় প্রতিবাদঃ ৬ মার্চের চা-চক্রের অনুষ্ঠান বয়কট

সিডনি প্রতিদিন নিউজঃ স্থানীয় সময় গতকাল ২ মার্চ (মঙ্গলবার) সন্ধ্যায় সিডনির লাকেম্বার একটি রেঁস্তোরার হলরুমে বাসভূমি টেলিভিশনের আয়োজনে সিডনির সদ্য নির্মিত বিকৃত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা স্মৃতিসৌধের বিরুদ্ধে সর্বদলীয় প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে গত ২১শে ফেব্রুয়ারি সিডনির বেলমোরের পিল পার্কে সমগ্র কমিউনিটির কাছে সম্পূর্ন গোপন রেখে বাংলাদেশি কমিউনিটি ও ক্যান্টারবেরি-ব্যাংকসটাউন কাউন্সিলের অর্থায়নে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা সৃতিসৌধের নামে একটি বিকৃত স্মৃতিসৌধ উন্মোচন করা হয়। এই সময় বাংলাদেশের দুতাবাসের কনসাল জেনারেল, ক্যান্টারবেরি-ব্যাংকসটাউন কাউন্সিলের কতিপয় প্রশাসনিক কর্মকর্তা, স্মৃতিসৌধ বাস্তবায়ন কমিটি ও তাদের কয়েকজন আস্থাভাজন উপস্থিত ছিলেন।

নিন্দা প্রতিবাদ সভায় অস্ট্রেলিয়া প্রবাসি বাংলাদেশি লেখক ও সাংবাদিকদের বৃহত্তম সংগঠন সিডনি প্রেস এ্যান্ড মিডিয়া কাউন্সিলসহ বিভিন্ন মিডিয়া, রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক গংঠন সহ দল ও মত নির্বিশেষে কমিউনিটির সিনিয়র নেতৃবন্দ এই প্রতিবাদ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

এই নিন্দা ও প্রতিবাদ সভায় যোগদানকারী সংগঠনগুলোর মধ্যে অন্যতম অস্ট্রেলিয়া আওয়ামীলীগ, অস্ট্রেলিয়া বিএনপি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ-অস্ট্রেলিয়া, জিয়া ফোরাম-অস্ট্রেলিয়া, স্বাধীন কণ্ঠ, বিজয় কন্ঠ, সিডনি প্রতিদিন, বিদেশবাংলা টোয়েন্টিফোর ডটকম, এবিসি বাংলা, সিক্সটি নাইন টেলিভিশন ও হক কথা প্রমুখ।

নিন্দা ও প্রতিবাদ সভায় প্রতিবাদ মুখর বক্তারা বলেন, দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা বাংলার’ প্রতিফলন এবং কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের আদলে স্মৃতিসৌধের পুনঃ নির্মাণ করতে হবে। সেইসাথে বিকৃত স্মৃতিসৌধ বাস্তবায়ন কমিটিকে এই হীন কাজের জন্য প্রবাসী সিডনিবাসী বাংলাদেশীদের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা সহ তাদের নিজস্ব অর্থায়নে পুনঃসংস্কার কাজ আগামী ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে।

তারা আরও বলেন, আমরা সিডনির বাংলাদেশী কমিউনিটিতে বিভাজন দেখতে চাইনা। এই সময় তারা দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করে বলেন, ব্যক্তিগত আক্রোশে সংযমহীন ভাষায় এবং অসংযত আচরণে কাউকে হেয় প্রতিপন্ন করাকে প্রতিরোধ ও কমিউনিটিতে মিথ্যে তথ্য দিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করাকে প্রতিহত করা হবে।

স্মৃতিসৌধ বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সাবেক কাউন্সিলর শাহ্ জামান টিটু নিজের দায়বদ্ধতার কথা স্বীকার করে উপস্থিত সবার কাছে আন্তরিক দুঃখ প্রকাশ করে বলেন আমি পূর্বেও আপনাদের আস্থাভাজন ছিলাম এবং এখনও স্মৃতিসৌধের পুনঃ নির্মাণে আপনাদের সাথে কাজ করতে চাই।

সভায় সর্ব সম্মতি ক্রমে সিডনিবাসীদের সম্পৃক্ত করে একটি সর্ব দলীয় কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয় এবং সেই কমিটি ক্যান্টারবেরি-ব্যাংকসটাউন কাউন্সিলের মেয়রের নিকট স্মৃতিসৌধের পুনঃ নির্মাণে তাদের পরামর্শ পেশ করবে বলেও জানানো হয়। এছাড়াও সভায় সর্ব সম্মতি ক্রমে স্মৃতিসৌধ বাস্তবায়ন কমিটি আয়োজিত আগামী ৬ মার্চের চা চক্রে যোগদানের নিমন্ত্রন বয়কট করা হয়।

উল্লেখ্য ল্যাকেম্বার পিল পার্কে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা স্মৃতিসৌধ নির্মাণের অর্থ সংগ্রহের জন্য স্মৃতিসৌধ বাস্তবায়ন কমিটি গত ১৩ই অক্টোবর ২০১৯ সালে রকডেলের একটি ফাংশন সেন্টারে গালা ডিনারের আয়োজন করে। সেই অনুষ্ঠানে পার্থ প্রতিম বালার অঙ্কিত একটি নকশা প্রদর্শিত হয়। প্রস্তাবিত সেই নকশা থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন একটি নকশা দিয়ে স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করলে সমগ্র কমিউনিটি বিক্ষোভ, হতাশা ক্ষোভ ও অসন্তোষে গর্জে ওঠে।