অস্ট্রেলিয়ার গোল্ডকোস্টে বিজয় দিবস পালিত

লাখো শহীদের রক্তে ভেজা যে স্বাধীনতা, যে স্বাধীনতা হাজার বছরের ইতিহাস বহন করে, বাংলা ভাষার ঐতিহ্যকে সমুন্নত করে, সেই বাংলাদেশ আর বাংলা ভাষার জন্য অকাতরে যারা জীবন উৎসর্গ করেছেন তাঁরা চির অম্লান। দেশ কাল ছাড়িয়ে এই স্বাধীনতার আলোয় আলোকিত হয় সমগ্র বাঙালি জাতি। তাই তো স্বাধীনতার ৪৯তম বছরে দাঁড়িয়েও বাঙালি জাতি অম্লান ভাবে স্মরণ করে তাদের আনন্দ-বেদনা আর অর্জনের ইতিহাস।

অস্ট্রেলিয়ার গোল্ডকোস্টের প্রবাসী বাংলাদেশীরা গত ১৯ শে ডিসেম্বর ৪৯তম স্বাধীনতা দিবসকে অত্যন্ত আবেগ এবং ভালবাসার মধ্য দিয়ে পালন করেছে। কোভিড-১৯ এর সীমাবদ্ধতার কারণে গোল্ডকোস্ট এবং ব্রিসবেন এর সংস্কৃতিমনা ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে ঘরোয়া আয়োজনে এই দিনটি উদযাপন করা হয়। সকল সাধারণ দর্শকদের জন্য অনুষ্ঠানটি অনলাইন এ সরাসরি প্রচারিত হয়। গোল্ডকোস্টের বিশিষ্ট আয়োজক ইঞ্জিনিয়ার মামুন চৌধুরী অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী ঘোষণা করেন।  সকলের সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান সূচনা করা হয়।

এরপর দেশাত্মবোধক গানের সাথে শিশুদের দু’টি একক নাচে অংশ নেয় সামান্থা এবং আরিয়া।অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ মূলক বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ আশরাফি, ডাঃ আলমগীর এবং বুদ্ধিজীবী কন্যা ইঞ্জিনিয়ার শারমিন চৌধুরী।

মুক্তিযুদ্ধের নানা পটভূমির উপর গান পরিবেশন করেন ব্রিসবেন থেকে আগত বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী সুচরিতা কর্মকার ও অবনী মাহবুব। সর্বশেষ গোল্ডকোস্টের স্থানীয় একটি ব্যান্ড গান পরিবেশন করেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি অত্যন্ত প্রানবন্তভাবে সঞ্চালনা করেন সঞ্জীব ভৌমিক। সকল সংস্কৃতিমনা ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠানটি একটি ভিন্ন মাত্রা পায়। এছাড়া দেশীয় নানা সুস্বাদু খাবার পরিবেশনার মাধ্যমে এই আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা হয়।

রূপকথার নটে গাছের মতই সব গল্প ফুরায়, ফুরিয়ে যায় সব আয়োজন। রয়ে যায় ভালোলাগার রেশ; আরেকটি নতুন প্রভাতকে বরণ করে নেবার প্রতীক্ষা। এভাবেই যুগে যুগে বীর শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে মানুষ স্বাধীনতার স্বাদ পায়; পায় স্বপ্ন দেখার প্রেরণা।এই আত্মত্যাগ কেবল একটি ভৌগলিক সীমারেখাই দেয় না, জাগ্রত করে মুক্ত মন আর মুক্ত চেতনাকেও – যার হাত ধরে জন্ম নেয় নতুন ইতিহাস, পরবর্তী প্রজন্ম গায় স্বাধীনতার গান।কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায়ঃ

           “ নিঃশেষে প্রাণ যে করিবে দান

                                 ক্ষয় নাই, তার ক্ষয় নাই।”  –

প্রেস বিজ্ঞপ্তি