অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডে বাংলাদেশীর আকষ্মিক মৃত্যুতে শোকের ছায়া

ড. রেজাউল চৌধুরী রবিন গতকাল ৫ ডিসেম্বর (শনিবার) স্থানীয় একটি পার্কের বার্বিকিউ পার্টিতে হঠাৎ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি….রাজেউন)। সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র ও প্রকৌশলী এবং সাউদার্ন কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষক মৃত্যুকালে স্ত্রী এবং ইয়ার নাইন ও ইয়ার ফোরে অধ্যয়নরত দুই ছেলে রেখে গেছেন।

মৃত্যুর সময় বার্বিকিউতে অংশগ্রহন কারী তাঁর এক বন্ধু জানান, “বার্বিকিউ শেষে বাচ্চাদের পুরস্কার বিতরনের পর রবিন একটি চেয়ারে বসে তার স্ত্রীকে শরীর খারাপ লাগছে জানিয়ে পানি খেতে চান। তার পরপরই তিনি পড়ে যান। প্যারামেডিকরা এসে প্রায় পঁয়ত্রিশ মিনিট ধরে বাঁচানোর চেষ্টার পর তারা রবিনকে মৃত্যু ঘোষনা করে।

উল্লেখ্য ড. রেজাউল চৌধুরী রবিন ২০০৫ সালে অস্ট্রেলিয়ায় আসেন। তিনি সাউথ অস্ট্রেলিয়া থেকে পিএইচডি করার পর ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন কুইন্সল্যান্ডে অধ্যাপনা শুরু করেন। পরবর্তীতে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের  ইউনিভার্সিটি অব আল এইনে অধ্যাপনা করেন। পরে সেখান থেকে তিন বছর আগে তিনি অস্ট্রেলিয়ায় এসে আবারও সাউদার্ন কুইন্সল্যান্ডে অধ্যাপনার পাশাপাশি গবেষনায় নিয়োজিত ছিলেন। বাংলাদেশ থেকে গোল্ড মেডেলিস্ট প্রাপ্ত রবিনের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে। ময়নাতদন্ত শেষে পরবর্তীতে তার লাশ দাফনের ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যাবে। রবিনের মৃত্যুতে প্রবাসী বাংলাদেশীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।