মিলন ভট্টাচার্যের ‘চাঁদের হাট’

পরিচালনা এবং অভিনয়ে সমান ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন জনপ্রিয় অভিনেতা ও পরিচালক মিলন ভট্টাচার্য। জরুরি বিবাহ, মেজাজ ফরটি নাইন, ভালো হতে পয়সা লাগে না, সহ অসংখ্য একক নাকট নির্মান করে অনেক আগেই দর্শকদের কাছে পরিচালক হিসেবে নজর কেড়েছেন মিলন ভট্টাচার্য। ধারাবাহিক ইনডিসিফিলিন পর একটা বিরতির পর আবারও চাঁদের হাট শিরোনামে একটি ধারাবাহিক নির্মান করলেন মিলন ভট্টাচার্য।

এক প্রশ্নের জবাবে পরিচালক ‘চাঁদের হাটে’ নিয়ে বলেন, একটা লম্বা বিরতির পর আমার এই ধারাবাহিক নির্মান করা। মূলত এই বিরতী ভালো গল্পের জন্যই। ‘চাঁদের হাট’ এমন একটি গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে যা সব শ্রেনীর দর্শকদের কাছে আশা করি ভালো লাগবে।

গল্প প্রসঙ্গে মিলন বলেন,স্বপ্নডানা গ্রামের মানুষের জীবন গাথা উঠে এসেছে এই ধারাবাহিকে। গল্পের প্রধান চরিত্র জালাল তালুকদার শুধু মাত্র সন্তান লাভের আশায় একাধিক বিয়ে করে। তার এই বিয়েতে সহয়তা করে এই গ্রামের রাজ্জাক ঘটক। জালালের এই বিয়ে পর্যাক্রমে বাকি বউয়েরা নীরবে মেনেও নেয়। তিন বউয়ের মধ্যে সারাক্ষণ দ্বদ্ব লেগে থাকলেও দিন শেষে তাদের মধ্যে দেখা যায় নীরব বন্ধন। জালালের এই বহু বিবাহ ভালো ভাবে নেয় না তার বন্ধু এই গ্রামে সহজ সরল ডুবুড়ি নয়ন। নয়নের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জালালের সাথে দ্বদ্ব লেগেই থাকতো। তারপরেও ভালোই চলছিলো চাল চুলোহীন নয়নের জীবন।

হঠাৎ শেফালি নামে এক মেয়েকে বিয়ে করে গ্রামে আসে নয়ন। বিয়ের প্রথম দিনেই গ্রামে এসে মানুষের কান কথা শুনে স্বামীকে সন্দেহ করতে থাকে শেফালি। বিউটি নামে এক মেয়েকে টাকার বিনিময়ে মিথ্যে প্রেমিকা সাজিয়ে শেফালির কাছে হাজির করে। তারপর থেকে নয়নের সংসারে অশান্তি লেগেই থাকে। সেটা এমন পর্যায়ে যায় যে নয়ন একদিন রাতে ঘর ছাড়তে বাধ্য হয়। সেই রাতে অনেক খোঁজা খুজির পরেও নয়নকে পাওয়া যায় না। এই নিয়ে দেখা দেয় নানান জটিলতা। অবশেষে সকালে অজ্ঞান অবস্থায় শশান ঘাটে এক তালগাছের নিচে।

কেউ বলে পিশাসে ধরেছে। কেউ বলে খাবারে বিষ দিয়ে অজ্ঞান করা হয়েছে। এই অবস্থায় নয়নের ঢাকা থেকে আসা নয়নের বন্ধু সানাউল্লা হাসপাতালে নিতে চাইলে গ্রামে অনেক আগে আসা আগন্তুক স্যাটালাইট বাবা নামে এক আধ্যাতিকের কাছে নেওয়া হয়। তার কাছে নয়নের জ্ঞান ফিরলেও আচরণে দেখা দেয় ব্যাপক পরিবর্তন। যে নয়ন ছোট বড় কারো সাথে মাথা তুলে কথা বলতে না। সে এখন কথায় কথায় সব্ইাকে চরথাপ্পর মারতে থাকে। এমনি নানান ঘটনা মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায় চাঁদের হাটের মূল গল্প।

এই ধারাবাহিকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- সালাহউদ্দিন লাভলু,রুনা খান,নাদিয়া আহমেদ,নাবিলা ইসলাম,ডাঃ ইজাজ,সাজু খাদেম,নাজিরা মৌ,রাসেদ জামান, নুরে আলম নয়ন, অপু,মকুল সিরাজ,মুন,শাওন,আপনসহ অনেকেই।

ধারাবাহিকটি আজ বুধবার রাত ১০টা থেকে প্রতি বুধবার, বৃহস্পতি ও শুক্রবার নাগরিক টিভিতে প্রচারিত হবে। ধারাবাহিকটি  প্রযোজনা করেছেন প্রচেষ্টার কন্যধর মোজাফফর দীপু।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s