সিডনিতে মিঠুর নুতন মিউজিক ভিডিও ‘দূরে’

আজ ২৯ নভেম্বর (রবিবার) দুপুর ১টায় সিডনির ব্যাঙ্কস টাউনস্থ লেমনগ্রাস থাই রেস্টুরেন্টে সিডনি প্রবাসী কণ্ঠ শিল্পী মিঠু স্বপ্ন’র নুতন একক “দূরে” গানটির মিউজিক ভিডিও আনুষ্ঠানিকভাবে উম্মোচন করা হয়। সিডনি প্রবাসী কণ্ঠ শিল্পী সহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ কেক কেটে এই মিউজিক ভিডিওটি আনুষ্ঠানিকভাবে উম্মোচন করেন। মিঠু স্বপ্ন’র লেখা ও সুরে ‘দূরে’ গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন ফাহাদ আসমার।

তন্দ্রার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান শুরুর পর বড় স্ক্রিনে “দূরে” গানটির মিউজিক ভিডিও প্রদর্শন করা হয়। তারপর মিঠু স্বপ্ন সহ সিডনি প্রবাসী প্রখ্যাত কণ্ঠ শিল্পীরা গান পরিবেশন করে অতিথিদের সুরের মূর্ছনায় মাতিয়ে রাখেন।  

দেশের শীর্ষ অডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ধ্রুব মিউজিক স্টেশন এই একক গানটি প্রকাশ করেছে। মিঠু স্বপ্ন তার স্বাগত বক্তৃতায় উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আবার নিয়মিত গান করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য নব্বই দশকের শেষদিকে ফাল্গুন মিউজিকের ব্যানারে মিঠু স্বপ্ন’র একক এ্যালবাম বাজারে আসে। সে সময় আধুনিক গানে তার দুটি গান টপ চার্টে স্থান পায়।

ভিকারুননিসা এলামনাই অস্ট্রেলিয়ার বার্ষিক সাধারন সভা অনুষ্ঠিত

স্থানীয় সময় ১৪ই নভেম্বর (শনিবার) ভিকারুননিসা এলামনাই অস্ট্রেলিয়া ( ভি এ অস)’র ৩য় বার্ষিক সাধারন সভা সিডনীর ক্যাসুলার একটি ফাংশন সেন্টারে উৎসব মুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে কার্যকরী পরিষদের সদস্যবৃন্দ ছাড়াও সাধারন সদস্যারা উপস্থিত ছিলেন।

এলামনাই এসোসিয়েশনের বর্তমান সভাপতি ডঃ মাহবুবা খানম মুক্তার স্বাগত বক্তব্যের পর সাধারন সম্পাদক ডঃ সুরঞ্জনা জেনিফার রহমান বার্ষিক কার্যবিবরণী এবং কোষাধ্যক্ষ তাসরিনা নাহিদ তন্বী আর্থিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। 

অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়াতে বসবাসরত ভিকারুন্নেসা স্কুল এবং কলেজের প্রাক্তন  শিক্ষার্থীদের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যপদে যোগদানের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়। নতুন সদস্য হতে আগ্রহীদের  অনলাইনে বিস্তারিত জানতে www.vaaus.org ওয়েবসাইটে যোগাযোগ করতে অনুরধ জানানো হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা জানান, সামগ্রিক কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনা করে আগামী বছর নারী দিবসকে সামনে রেখে একটি ফান্ড রেইজিং ইভেন্ট আয়োজন করা হবে৷ পাশাপাশি ২০২১ সালে সকল ভিকারুননিসা এলামনাই কে সাথে নিয়ে একটি “পূনর্মিলনী” আয়োজনের উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়৷ ফান্ড রেইজিং ইভেন্ট ও পূনর্মিলনী সংক্রান্ত সকল তথ্য এসোসিয়েশনের ওয়েবসাইট ও ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে যথা সময়ে সবাইকে জানানো হবে বলে তারা জানান।

উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়। সংগঠনের পক্ষ থেকে পাবলিকেশন্স সেক্রেটারি (সাকিনা আক্তার) এই তথ্য জানান।

সিডনিতে ক্যানটারবুরি- ব্যাঙ্কসটাউন কাউন্সিল বাংলাদেশী সংগঠনকে কোভিড সম্মাননা দিয়েছে

স্থানীয় সময় আজ ২৪ নভেম্বর (মঙ্গলবার) ক্যানটারবুরি- ব্যাঙ্কসটাউন সিটি মেয়র খাল আসফর বাংলাদেশী সংগঠন ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমুহকে কোভিড সম্মাননায় ভূষিত করেন। কোভিডের কারনে স্থানীয় ল্যাকাম্বা লাইব্রেরিতে আয়োজিত বিশাল ভার্চুয়াল স্ক্রিনে এই সম্মাননা অনুষ্ঠিত হয়।  

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বিশেষতঃ চাকরিচ্যুত অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশি শরণার্থী ও অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ বিদেশি শিক্ষার্থীদের জরুরি সহায়তা প্রদানে বাংলাদেশি সংগঠনগুলোর সক্রিয় সহায়তার স্বীকৃতি স্বরূপ ক্যানটারবুরি-ব্যাঙ্কসটাউন সিটি মেয়র এই সম্মাননা সার্টিফিকেট প্রদান করেন।

অস্ট্রেলিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশি লেখক ও সাংবাদিকদের সংগঠন সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল সহ মোট ১২ টি প্রবাসী বাংলাদেশী সংগঠন ও ৬ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মানবিক সহযোগিতায় সক্রিয় ভূমিকা পালন করায় কোভিড-১৯ সম্মাননা পুরস্কারে ভূষিত হয়।

মেয়র খাল আসফর কোভিড কালীন সময়ে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থদের জরুরি সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রবাসী বাংলাদেশী সংগঠনগুলিকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলি হচ্ছে ব্রান্ডিং বাংলাদেশ ইনক, চ্যারিটি ফর লাইভ অস্ট্রেলিয়া, সাইলেন্ট হ্যান্ড সাপোর্ট ফর ম্যানকাইন্ড, আপিল ফর হিউমানিটি, গ্রসারি এন্ড ফুড ডোর টু ডোর, ওয়ার এগেনেসট কোভিড, ম্যান ফর ম্যানকাইন্ড-লাইভ ফর লিভস, মাল্টিকালচারাল সোসাইটি অফ ক্যাম্বেলটাউন, লেটস শেয়ার টুবি ফেয়ার, শেয়ার উইথ লাভ, উই আর ফর হিউমিনিটি। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলি হচ্ছে অসট্রাল বিল্ড, টিএম এলায়েন্স মোটর গ্রুপ, বিঙ্গ ফাইনান্স, এ এন্ড ও হোমস, নার্গিস কেবাব এন্ড চিকেন রেস্টুরেন্ট, চকলেট ডি মনডও, বারুদ।

সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলের পক্ষ থেকে সম্মাননা সার্টিফিকেট গ্রহন করেন সংগঠনটির সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল মতিন ও সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ আবদুল্লাহ ইউসুফ শামিম।

সিডনিতে রজত এর জানাজা ২৪ নভেম্বর

সিডনি প্রবাসী মোঃ মোমিনুর রহমান (রজত) এর নামাজে জানাজা আগামী ২৪ নভেম্বর ( মঙ্গলবার) সকাল ১১ টায়, ৬ রিচার্ডসন রোডস্থ নারেলেন কবরস্থানে অনুষ্ঠিত হবে। রজতের স্ত্রী ও বন্ধুরা নামাজে জানাজা ও দোয়ায় শরীক হয়ে মৃতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করার জন্য কমিউনিটির সবার প্রতি বিনীত অনুরোধ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ২১ নভেম্বর (শনিবার) ভোরে ইঙ্গেলবার্নস্থ নিজ বাসভবনে ঘুমন্ত অবস্থায় মোঃ মোমিনুর রহমান (রজত) শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহে ও ইন্না ইলেইহে রাজেউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী তানজিনা জামান (মনি), এক মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন।

সিডনিতে বিডি কমিউনিটি হাব এর পথচলা শুরু

স্থানীয় সময় গত ২২ নভেম্বর (রবিবার) বিকেলে সিডনীর মিন্টোস্থ ২ এরিকা লেনের নিজস্ব ভবনে “বিডি কমিউনিটি হাব সিডনী” সংগঠনটির পক্ষ থেকে সার্বজনীন মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সংগঠনটির সভাপতি আবুল সরকারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল বারেক খান রতনের সঞ্চালনায় সিডনির রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক, সাংবাদিক ও বুদ্ধিজীবিরা এই মত বিনিময় সভায় অংশগ্রহন করে বিভিন্ন গঠনমুলক মতামত ও পরামর্শ প্রদান করেন। এই মত বিনিময় সভায় সংগঠনটির উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন কর্মসূচী ও পরামর্শ সাদরে গৃহীত হয়।

সংগঠনের সদস্যরা জানান, বৃহত্তর ক্যাম্বেলটাউন এলাকার এই বর্ধিস্নু কমিউনিটিতে আমাদের নিজস্ব কোন স্থান নেই, যেখানে আমরা মিলিত হতে পারি। খেতে পারি ফুসকা, চটপটি, আয়োজন করতে পারি সাহিত্য সভা, কবিতা বিকেল কিংবা নাটক। সবাই মিলে খেলা দেখবো একসাথে। তর্ক করবো, জিতবো, হারবো এক সাথে। পাশাপাশি পশ্চিমা জোয়ারের হাতছানি থেকে রক্ষা করবো আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে। প্রতিষ্ঠা করবো পাঠাগার। পারিবারিক কলহ রোধে আয়োজন করা হবে সেমিনারের। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিব একে অন্যের প্রতি। এই সব প্রত্যয় নিয়ে ”বিডি কমিউনিটি হাব সিডনী” নামে একটি নতুন সংগঠনের আত্নপ্রকাশ ঘটছে। 

সভায় বক্তারা নতুন সংগঠনের রূপরেখা, আদর্শ, উদ্দেশ্য ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বিভিন্ন গঠনমুলক নির্দেশনা দেন। পাশাপাশি ব্যায়ামাগার, লাইব্রেরী, জাস্টিস অফ পিস সার্ভিস, বিভিন্ন ইনডোর খেলাধুলা, মহিলাদের জন্য পৃথক সভা কক্ষ, মত বিনিময় সভা ও সেমিনার সহ দেশ ও অস্ট্রেলিয়ার সব ধরনের জাতীয় দিবস উদযাপনের জন্য সিধান্তও গৃহীত হয়। তবে সংগঠনটির এই পথচলায় কিভাবে নুতন প্রজন্মকে সম্পৃক্ত করা যায় তার উপর বিশদ আলোচনা ও অগ্রাধিকার দেয়া হয়।

সংগঠনটির অন্যান্য সদস্যরা হচ্ছেন, ফয়সাল আজাদ, সফিক শেখ, নীরব, সৈয়দ মিঠু, মোহাম্মদ লুতফর রহমান টিপু, শাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ।  “বিডি কমিউনিটি হাব সিডনী” সংগঠনটির আত্নপ্রকাশ এই প্রথমবারের মতো প্রবাসী বাংলাদেশীদের একটি নিজস্ব কমিউনিটি সেন্টারের দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে বলে বিজ্ঞ জনেরা মনে করছেন।

সিডনিতে দুর্ঘটনায় বাংলাদেশী শিক্ষার্থী নিহত

আজ স্থানীয় সময় ২১ নভেম্বর (রবিবার) প্রবাসী বাংলাদেশী শিক্ষার্থী বিজয় পাল সিডনির কোগরাহস্থ ম্যাকডোনাল্ড সংলগ্ল জেব্রা ক্রসিং এ একটি ফোর হুইল ড্রাইভ গাড়ির সাথে মুখোমুখি দুর্ঘটনায় গুরুতরভাবে আহত হন। স্থানীয়রা জানান, ‘উবার ফুড’ চালক বিজয় পালকে দ্রুত সেন্ট জর্জ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা লাইফসাপোর্ট দেয়ার কিচ্ছুক্ষন পরেই তিনি মারা যান।

বিজয় পাল ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি সিডনিতে মাস্টার্সের শিক্ষার্থী এবং বাংলাদেশের টাংগাইল জেলার বাসিন্দা। বিজয় পালের এক বোনও শিক্ষার্থী হিসেবে সিডনিতে থাকেন বলে একটি সুত্র জানিয়েছে। প্রয়োজনীয় ময়না তদন্তের পর মৃতের লাশ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন।

সিডনি প্রবাসী রজতের অকাল মৃত্যু

সিডনি প্রবাসী মোঃ মোমিনুর রহমান (রজত) আজ ২১ নভেম্বর (শনিবার) ভোরে ইঙ্গেলবার্নস্থ নিজ বাসভবনে ঘুমন্ত অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহে ও ইন্না ইলেইহে রাজেউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী তানজিনা জামান (মনি), এক মেয়ে (১২) ও এক ছেলে (৬) রেখে গেছেন। ভোর রাতে কাজ শেষে বাসায় ফিরে রজত ঘুমাতে যান। রজতের বন্ধু মাহমুদ হোসেইন ইমন জানান, সকালের দিকে তার স্ত্রী ছেলেকে নিয়ে বাইরে যাবার আগে ঘুমন্ত রজতকে বলতে এলে তিনি স্বামীকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায় এবং পুলিশ ও এম্বুলেন্সে খবর দেন। সকাল ৯ টার দিকে তার মৃতদেহ মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকা সিটি কলেজের ছাত্র রজত ২০০০ সালের অক্টোবর মাসে পার্থে আসেন। পরবর্তীতে ২০০১ সালে সিডনি এসে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। রজতের অকাল মৃত্যুতে সিডনি কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বন্ধু বৎসল মরহুমের বন্ধু বান্ধব ও শুভাকাঙ্খারিরা হতবিহবল হয়ে পড়েছে। রজতের স্ত্রী ও বন্ধুরা তার আত্মার মাগফেরাতের জন্য দেশ ও প্রবাসের সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন। জানাজা ও দাফনের তারিখ পরে জানানো হবে।

অস্ট্রেলিয়ায় যুবলীগের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

স্থানীয় সময় গত ১৪ নভেম্বর (শনিবার) সন্ধ্যায় সিডনির বাঙালী পাড়াখ্যাত লাকেম্বায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়। নেতা কর্মীদের উপস্থিতিতে স্লোগান ও উদ্দীপনায় ভরে উঠে আয়োজনটি। এসময় অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী লীগের সম্মানিত নেতৃবৃন্দসহ মিডিয়া ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থেকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন আলোকিত করে তোলেন।

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সভাপতি মোঃ সেলিমের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল নোমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী যুবলীলের সভাপতি মোস্তাক মেরাজ, যুগ্ন সম্পাদক অপু সারোয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আসরাফ হিমেল, মহীউদ্দিন কাদির, মোহাম্মদ হাফিজসহ অন্যান্যরা। কেক কেটে ও জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে উদযাপিত হয় যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ মনির আদর্শকে ধারন করে এবং শেখ মনির সুযোগ্য সন্তান কেন্দ্রীয় যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সাধারন সম্পাদক মইনুল হোসেন নিখিলের নেতৃত্বের প্রতি আস্থা রেখে বক্তব্য রাখেন নেতা-কর্মীরা।

আরো বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান তরুন, অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি ড: খায়রুল চৌধুরী, কেন্দ্রীয় ঢাকা দক্ষিন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুল হক শফিক, অস্ট্রেলিয়া আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এমদাদ হক, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মুনীর চৌধুরী, ট্রেজারার জমীর হোসেইন, অস্ট্রেলিয়া যুবলীগ নেতা ইমরান হোসেইন, শাহ নেওয়াজ আলো, ড: সাইফুল ইসলাম। উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়া যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ হোসেইন, সৈয়দ আশীষ, সুফিয়ান মেনথন,  সাব্বির চৌধুরী, সালমিন সুলতানা, বিথী, ফাহাদ আসমার প্রমুখ। প্রানবন্ত আবৃত্তি করেন যুবলীগ নেতা আরিফুর রহমান।

পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ মিয়াকে সম্মাননা দিয়েছে সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল

‘দি রিয়েল হিরো’ পুলিশ কনস্টেবল পারভেজ মিয়াকে (বিপিএম) সম্মাননা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসি বাংলাদেশি লেখক ও সাংবাদিকদের বৃহত্তম সংগঠন সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল। গতকাল ১৫ নভেম্বর (রোববার) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলায়তনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্মাননা স্মারক ও ৫০ হাজার টাকা উপহার দেয়া হয়।

বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরামের (বিজেআরএফ) সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমানের পরিচাচলানায় সম্মননা প্রদান অনুষ্ঠানে পারভেজ মিয়ার বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তাকে একজন বীরযোদ্ধা হিসেবে অভিহিত করা হয়। সম্মননা প্রদান অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক প্রতিনিধি সৈয়দ সুলতান উদ্দীন আহমদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, লেবার রাইটস সাংবাদিক ফোরামের যুগ্ম সম্পাদক আমানুর রহমান, টাইমস টোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী গোলাম ইমরুল কায়সার নিপন ও পরিচালক অপারেশনস ড. মুহাম্মদ মশিউর রহমান।

২০১৭ সালের ৭ জুলাই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দি গৌরিপুরে একটি বাস রাস্তার পাশের খালে পড়ে যায়। সেদিন পারভেজ মিয়ার সাহসিকতায় বেঁচে গিয়েছিল শিশুসহ অনেক যাত্রীর প্রাণ। কিন্তু ২০১৯ সালের ২৭ মে ডিউটিরত অবস্থায় কাভার্ড ভ্যানের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়ে নিজের একটি পা হারান এই বীরযোদ্ধা পারভেজ মিয়া।

পেশাগত দক্ষতার কারণে পারভেজ মিয়া পেয়েছেন পুলিশের সর্বোচ্চ পুরস্কার বিপিএম পদক, শ্রেষ্ঠ কনস্টেবল পদকসহ নানা সম্মাননা স্মারক। পুলিশের একজন সিপাহীর এমন সাহসিকতা ও বীরত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি দিতে সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিলের পক্ষ থেকে এই পুরস্কার দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিল বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরামের (বিজেআরএফ) এবং মিডিয়া পার্টনার টাইমস টোয়েন্টিফোর টেলিভিশন।

সিডনিতে কোভিড হিরো সম্মামনা প্রদান

স্থানীয় সময় আজ ১৫ নভেম্বর (রবিবার) দুপুর ১২ টায় ব্যাংকস টাউনস্থ হিমালয় এ্যামপোরিয়াম এন্ড ফাংশন সেন্টারে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের পক্ষ থেকে “কোভিড হিরো এওয়ার্ড” প্রদান করা হয়। বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বিশেষতঃ চাকরিচ্যুত অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশি শরণার্থী ও অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ বিদেশি শিক্ষার্থীদের জরুরি সহায়তা প্রদানে বাংলাদেশি সংগঠনগুলোর সক্রিয় সহায়তার স্বীকৃতি স্বরূপ নিউ সাউথ ওয়েলস সরকারের পক্ষ থেকে এই সম্মাননা দেয়া হয়। সম্মাননা এওয়ার্ড প্রদান করেন অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস পার্লামেন্টের সরকার দলীয় এমপি ও সহকারী স্পিকার মার্ক কৌর এবং ইস্ট হিলস এলাকার সরকার দলীয় এমপি উওয়েন্ডি লিন্ডসে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রবাসী বাংলাদেশি লেখক ও সাংবাদিকদের সংগঠন সিডনি প্রেস এন্ড মিডিয়া কাউন্সিল সহ মোট ১২ টি প্রবাসী বাংলাদেশী সংগঠন ও ৬ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মানবিক সহযোগিতায় সক্রিয় ভূমিকা পালন করায় কোভিড-১৯ সম্মাননা পুরস্কারে ভূষিত হয়।

অনুষ্ঠানের কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্ব পালন করেন ক্যান্টারবারি-ব্যাংকস টাউন সিটি কাউন্সিলের সাবেক কাউন্সিলর ও অস্ট্রেলিয়ান লিবারেল পার্টি ল্যাকাম্বা শাখার সভাপতি মোহাম্মদ শাহে জামান টিটু।

অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরুর পর এনি সাবরিনের উপস্থাপনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন মার্ক কৌর এমপি, উওয়েন্ডি লিন্ডসে এমপি, কনসাল জেনারেল খন্দকার মাসুদুল আলম, ডাঃ আয়াজ চৌধুরী, কাউন্সিলর জর্জ জাখিয়া, টেলেঅজ ডট কমের সিইও জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ। বক্তারা কোভিড কালীন সময়ে অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থদের জরুরি সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রবাসী বাংলাদেশী সংগঠনগুলিকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সামাজিক প্রতিষ্ঠানগুলি হচ্ছে ব্রান্ডিং বাংলাদেশ ইনক, চ্যারিটি ফর লাইভ অস্ট্রেলিয়া, সাইলেন্ট হ্যান্ড সাপোর্ট ফর ম্যানকাইন্ড, আপিল ফর হিউমানিটি, গ্রসারি এন্ড ফুড ডোর টু ডোর, ওয়ার এগেনেসট কোভিড, ম্যান ফর ম্যানকাইন্ড-লাইভ ফর লিভস, মাল্টিকালচারাল সোসাইটি অফ ক্যাম্বেলটাউন, লেটস শেয়ার টুবি ফেয়ার, শেয়ার উইথ লাভ, এক্স ইউবিয়ান অস্ট্রেলিয়া। ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুলি হচ্ছে টেলেঅজ ডট কম, অসট্রাল বিল্ড, ইএসআই গ্লোবাল সার্ভিসেস, টিএম এলায়েন্স মোটর গ্রুপ, বিঙ্গ ফাইনান্স, এ এন্ড ও হোমস, নার্গিস কেবাব এন্ড চিকেন রেস্টুরেন্ট, চকলেট ডি মনডও, বারুদ।

সামাজিক দূরত্ব মেনে প্রায় ১৫০ জন অতিথি এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। দুপুরের খাবারের পর অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।