ক্যানবেরায় বঙ্গবন্ধুর “জীবনী ও উত্তরাধিকার” শীর্ষক একক চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

ডঃ রতন কুণ্ডুঃ স্থানীয় সময় আজ ৮ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) বাংলাদেশ হাইকমিশন ক্যানবেরা মুজিব বর্ষের অনুষ্ঠানের ধারাবাহিকতায় বাঙালির জাতির পিতা, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের “জীবনী ও উত্তরাধিকার” শীর্ষক চার দিন ব্যাপী একক চিত্র ও ছায়া চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করে। 

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানবেরার মানুকা আর্টস সেন্টারের হুও ডেভিস গ্যালারিতে এ প্রদর্শনী চার দিন ব্যাপী চলবে। পাশাপাশি আজ থেকে আগামী ১৩ তারিখ পর্যন্ত সর্ব সাধারণের জন্য গ্যালারী উম্মুক্ত থাকবে। এ প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধুর জীবন চিত্র, ভিডিও ও ডকুমেন্টারী প্রদর্শিত হবে।  অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত মান্যবর হাই কমিশনার সুফিউর রহমান। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রবাসে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, এর অঙ্গসংঘঠন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বঙ্গবন্ধু কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়ার নেতৃবৃন্দ, অন্যান্য দূতাবাস প্রধান গণ, অস্ট্রেলিয়া সরকার ও ছায়া সরকারের মন্ত্রী, এম পি, একাডেমিক,  সাংবাদিক ও বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্যে হাই কমিশনার সুফিউর রহমান অস্ট্রেলিয়ার ভূমি মালিকদের কৃতজ্ঞতা জানানোর পর অনুষ্ঠানে আগত সব অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য আদর্শ ও বিস্তারিত কর্মসূচির বর্ণনা করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সমুন্নত রেখে তাঁর সুযোগ্য তনয়া বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানের কথাও কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করে দেশের উন্নয়নে তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রম ও ভূমিকার ভূয়শী প্রশংসা করেন। দেশ আজ নিন্মবিত্ত থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তীর্ণ হয়েছে শুধুমাত্র তাঁরই প্রজ্ঞা ও ভূমিকার কারণে উল্লেখ করে হাই কমিশনার সবাইকে কাঁধে কাঁধ রেখে প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প ভিশন ২০২১ ও স্বপ্নকল্প ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে দেশে বিদেশে সবাইকে সহযোগিতার আহ্বান জানান। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে প্রবাসে বঙ্গবন্ধু পরিষদ অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গসংগঠন সমূহের ভূমিকারও প্রশংসা করেন।

তারপর তিনি বঙ্গবন্ধুর জীবনী, তাঁর আদর্শ ও প্রবাসে আমাদের করণীয় শীর্ষক আলোচনায় অংশ নেন। কোভিড – ১৯ এর সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও কনসুলেট অফিস নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে জানিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ মিশনে জাতির পিতার জীবনাদর্শের উপর চিত্র ও ভিডিও প্রদর্শনী এর একটা অংশ বলে উল্লেখ করেন। এর আসল উদ্দেশ্য হলো তাঁর আদর্শকে বিশ্ব দরবারে সম্প্রচার করা। সহযোগিতার জন্য তিনি প্রবাসের রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক সব সংগঠনকে ধন্যবাদ জানান।

চাঞ্চেরি প্রধান প্রথম সচিব মিসেস তাহলীল দিলওয়ার মুন অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষে বাংলাদেশ মিশনের গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন। তারপর বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক এক ডকুমেন্টারী প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের উপর আলোচনা অংশ নিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের প্রধানদের সাথে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্প স্তবক অর্পণ ও সম্নান প্রদর্শন  করেন। হাইকমিশনার সুফিউর রহমান কুনীতিটিক ও আগত অতিথিদের গ্যালারি ঘুড়িয়ে দেখান ও ঐতিহাসিক পটভূমি ব্যাখ্যা করেন। তারপর সবাইকে ডিনারে আপ্যায়ন করা হয়।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s