ন্যাশনাল স্পোর্টস ক্লাব অব অস্ট্রেলিয়া’র পুর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা

মোহাম্মদ আব্দুল মতিনঃ প্রবাসী নতুন প্রজন্মকে আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে শারীরিক ও মানসিক বিকাশের জন্য খেলাধুলা খুবই প্রয়োজন। খেলাধুলা মস্তিষ্ক ও মনকে সতেজ রাখে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয় এবং মানসিক শক্তি বৃদ্ধি করে।

অস্ট্রেলিয়ায় বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের জন্য প্রবাসি বাংলাদেশিদের উদ্যোগে গঠন করা হয়েছে ‘ন্যাশনাল স্পোর্টস ক্লাব অব অস্ট্রেলিয়া’। এই ক্লাবের মাধ্যমে দক্ষ প্রশিক্ষকের মাধ্যমে ক্রিকেট ও ছকার সহ বিভিন্ন খেলার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। ন্যাশনাল স্পোর্টস ক্লাব অব অস্ট্রেলিয়া তাদের পুর্নাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করেছে। মামুনুর রশিদ প্রেসিডেন্ট, মোহাম্মদ আলী শিকদার ভাইস প্রেসিডেন্ট, জামাল হোসেন ভাইস প্রেসিডেন্ট, মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান সেক্রেটারি, শাহ জাহান জয়েন সেক্রেটারি, মোহাম্মদ আশরাফুল আলম লাবু, ট্রেজারার, ওমর বিন হাওয়েল স্পোর্টস সেক্রেটারি, আলী আশরাফ হিমেল জয়েন্ট স্পোর্টস সেক্রেটারি, আমিত ভাসা অরগানাইজেশনাল সেক্রেটারি, মোহাম্মেদ কামরুজ্জামান বাপ্পি কমিউনিটি এনগেজমেণ্ট কো-অরডিনেটর, আসমা আলম কাশফি কমিউনিকেশন ও মিডিয়া সেক্রেটারি।

অস্ট্রেলিয়ায় বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে বেগম খালেদা জিয়ার চিরস্থায়ী মুক্তি ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবী

গৌরব, ঐতিহ্য, স্বাধীনতা, স্বার্বভৌমত্ব ও গনতন্ত্রের প্রতিক বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল অস্ট্রেলিয়া শাখা (একাংশ) এক র‍্যালী আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। পায়রা (কবুতর) ,বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর বর্নাঢ্য উদ্বোধন করেন অস্ট্রেলিয়া শাখা বিএনপি’র সাবেক আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন।

সিডনির ল্যাকেম্বায় ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন  মো: কুদরত উল্যাহ লিটন। নাসিম হোসাইন ও ইয়াসির আরাফাত সবুজের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে  ঊপস্হিত ছিলেন বিএনপি’র সাবেক আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন। প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন মোবারক হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যুবদল অস্ট্রেলিয়া শাখার নেতা ইয়াসির আরাফাত সবুজ, স্বেচ্ছাসেবক দল অস্ট্রেলিয়ার নেতা এ.এন.এম মাসুম, জিয়া শিশু কিশোর মেলার অস্ট্রেলিয়া শাখার নেতা  জাকির হোসেন রাজু।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন যুবদল অস্ট্রেলিয়া শাখার নেতা খায়রুল কবির পিন্টু, নিউ সাউথ ওয়েলস্ বিএনপির নেতা  কামরুল ইসলাম শামীম ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। জাতীয়তাবাদী দল অস্ট্রেলিয়া শাখার নেতৃবৃন্দ শহীদ রাস্ট্রপতি জিয়াঊর রহমানের গৌরবময় রাজনৈতিক কর্মকান্ড  ও দেশ গঠনে তাঁর অবদানের কথা স্মরণ করে বক্তব্য রাখেন। 

বক্তারা দলের ৪২তম জন্মদিনে শহীদ রাস্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরন করেন এবং তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। বহু দলীয় গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, সংবাদ পত্রের স্বাধীনতা, শোষনমুক্ত সমাজ ব্যবস্থা, অর্থনৈতিক মুক্তি ও আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মানে এই রাখাল রাজা ক্ষনজন্মা নেতার কথা শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করেন।

আলোচনা সভায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দীর্ঘায়ু,সুস্থতা সহ চিরস্থায়ী মুক্তি কামনা করে সুখী সম্মৃদ্ধ বাংলাদেশের জন্য পরম করূনাময় আল্লাহর দরবারে সকলে দোয়া করেন। অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে বিএনপি’র সকল স্তরের নেতৃবৃন্দ কেক কেটে ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন অনুপ গোমেজ, আমজাদ খান, মোহাম্মদ নাসির হোসাইন, শাহজাহান, মো: গিয়াসউদ্দিন খান, শেখ উদ্দিন ফরিদ আহমেদ, সুধন জোসেফ গোমেজ, অসিত ফ্রান্সিস গোমেজ, মামুন, গোলাম রাব্বী,গোলাম রাব্বানী, মো: মতিউর রহমান, নূর মোহাম্মদ মাসুম, রাজু, আব্দুল করিম, জাবেল হক, মোমিন, মো: কামরূজ্জামান প্রমুখ।

ক্যানবেরায় বঙ্গবন্ধুর “জীবনী ও উত্তরাধিকার” শীর্ষক একক চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

ডঃ রতন কুণ্ডুঃ স্থানীয় সময় আজ ৮ সেপ্টেম্বর (মঙ্গলবার) বাংলাদেশ হাইকমিশন ক্যানবেরা মুজিব বর্ষের অনুষ্ঠানের ধারাবাহিকতায় বাঙালির জাতির পিতা, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের “জীবনী ও উত্তরাধিকার” শীর্ষক চার দিন ব্যাপী একক চিত্র ও ছায়া চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করে। 

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানবেরার মানুকা আর্টস সেন্টারের হুও ডেভিস গ্যালারিতে এ প্রদর্শনী চার দিন ব্যাপী চলবে। পাশাপাশি আজ থেকে আগামী ১৩ তারিখ পর্যন্ত সর্ব সাধারণের জন্য গ্যালারী উম্মুক্ত থাকবে। এ প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধুর জীবন চিত্র, ভিডিও ও ডকুমেন্টারী প্রদর্শিত হবে।  অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত মান্যবর হাই কমিশনার সুফিউর রহমান। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রবাসে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, এর অঙ্গসংঘঠন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বঙ্গবন্ধু কাউন্সিল অস্ট্রেলিয়ার নেতৃবৃন্দ, অন্যান্য দূতাবাস প্রধান গণ, অস্ট্রেলিয়া সরকার ও ছায়া সরকারের মন্ত্রী, এম পি, একাডেমিক,  সাংবাদিক ও বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্যে হাই কমিশনার সুফিউর রহমান অস্ট্রেলিয়ার ভূমি মালিকদের কৃতজ্ঞতা জানানোর পর অনুষ্ঠানে আগত সব অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য আদর্শ ও বিস্তারিত কর্মসূচির বর্ণনা করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সমুন্নত রেখে তাঁর সুযোগ্য তনয়া বাংলাদেশের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদানের কথাও কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করে দেশের উন্নয়নে তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রম ও ভূমিকার ভূয়শী প্রশংসা করেন। দেশ আজ নিন্মবিত্ত থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তীর্ণ হয়েছে শুধুমাত্র তাঁরই প্রজ্ঞা ও ভূমিকার কারণে উল্লেখ করে হাই কমিশনার সবাইকে কাঁধে কাঁধ রেখে প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প ভিশন ২০২১ ও স্বপ্নকল্প ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে দেশে বিদেশে সবাইকে সহযোগিতার আহ্বান জানান। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে প্রবাসে বঙ্গবন্ধু পরিষদ অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গসংগঠন সমূহের ভূমিকারও প্রশংসা করেন।

তারপর তিনি বঙ্গবন্ধুর জীবনী, তাঁর আদর্শ ও প্রবাসে আমাদের করণীয় শীর্ষক আলোচনায় অংশ নেন। কোভিড – ১৯ এর সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও কনসুলেট অফিস নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে জানিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ মিশনে জাতির পিতার জীবনাদর্শের উপর চিত্র ও ভিডিও প্রদর্শনী এর একটা অংশ বলে উল্লেখ করেন। এর আসল উদ্দেশ্য হলো তাঁর আদর্শকে বিশ্ব দরবারে সম্প্রচার করা। সহযোগিতার জন্য তিনি প্রবাসের রাজনৈতিক ও অরাজনৈতিক সব সংগঠনকে ধন্যবাদ জানান।

চাঞ্চেরি প্রধান প্রথম সচিব মিসেস তাহলীল দিলওয়ার মুন অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষে বাংলাদেশ মিশনের গৃহীত বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন। তারপর বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক এক ডকুমেন্টারী প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের উপর আলোচনা অংশ নিয়ে বিভিন্ন সংগঠনের প্রধানদের সাথে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্প স্তবক অর্পণ ও সম্নান প্রদর্শন  করেন। হাইকমিশনার সুফিউর রহমান কুনীতিটিক ও আগত অতিথিদের গ্যালারি ঘুড়িয়ে দেখান ও ঐতিহাসিক পটভূমি ব্যাখ্যা করেন। তারপর সবাইকে ডিনারে আপ্যায়ন করা হয়।