অস্ট্রেলিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফেরাতে বিশেষ ফ্লাইট ৮ মে

মোহাম্মাদ আবদুল মতিন: অস্ট্রেলিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশি নাগরিকদের বিশেষ বিমানযোগে দেশে ফিরিয়ে নিতে বিশেষ  উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ সরকার। অস্ট্রেলিয়া থেকে শ্রীলংকান এয়ারলাইন্স এর একটি বিশেষ চ্যাটার্ট ফ্লাইটের ব্যবস্থা করেছে ক্যানবেরায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস। আগামী ৮ মে শ্রীলংকান এয়ারলাইন্স এর এই বিশেষ ফ্লাইটি মেলবোর্ন এয়ারপোর্ট থেকে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত রাখা রয়েছে। 

মালেশিয়ান এয়ারলাইন্স এর যে ফ্লাইটটি  ৭ মে সিডনি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল প্রয়োজনীয় সংখ্যক যাত্রী না হওয়ায় ওই ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের কারণে বিভিন্ন দেশে আটকে পরেছেন কয়েক লাখ মানুষ। নিজেদের নাগরিককে দেশে ফিরিয়ে নিতে ইতোমধ্যেই অনেক দেশই বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশে আটকা পড়া অস্ট্রেলিয়ান নাগরিকদেরকে দু’টি বিশেষ ফ্লাইটের মাধ্যমে ফিরিয়ে এনেছে অস্ট্রেলিয়ান সরকার।

এদিকে অস্ট্রেলিয়ায় ভ্রমণে এসে আটকে পড়েছে প্রায় ৩৮০ জন বাংলাদেশি। এই নাগরিকদের দেশে ফেরত পাঠাতে অস্ট্রেলিয়ার ক্যানবেরায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস  তাদের অফিশিয়াল ওয়েব সাইটে গত ৪ এপ্রিল ঘোষণা দিয়ে বলেছে, অস্ট্রেলিয়ায় আটকে পড়া যেসব বাংলাদেশি দেশে ফিরতে আগ্রহী তারা যেন দ্রুত হাইকমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। 

এরপর ৩৫০ জন বাংলাদেশি তাদের নাম নিবন্ধন করেছেন বলে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে বলা হয়েছে। এদেরকে দেশে ফেরাতে একটি বড় ফ্লাইটের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এদিকে প্রাথমিক ভাবে ৩৫০ জন বাংলাদেশে ফেরত যেতে তাদের আগ্রহ দেখালেও পরবর্তীতে তারা পিছিয়ে যান। ওই ফ্লাইটিতে কমপক্ষে ২৬০ জন যাত্রীর প্রয়োজন ছিল। তাই সিডনির ফ্লাইটটি বাতিল করে মেলবোর্ন থেকে এই নতুন ফ্লাইটের ব্যবস্থা করা হয়। 

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে নিযুক্ত  কনসুলেট জেনারেল অব বাংলাদেশ মোহাম্মাদ কামরুজ্জামান  জানিয়েছেন, অস্ট্রেলিয়ায় আটকে পড়া ১৫৯ জন বাংলাদেশি দেশে যাওয়ার জন্য নিবন্ধনভুক্ত হয়েছেন এবং এই বিশেষ চ্যাটার্ট ফ্লাইটে তারা বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিবেন।