সিডনিতে রংধনুর বার্ষিক ট্যালেন্ট আওয়ার্ড অনুষ্ঠিত

প্রতিবছরের মতো এবছরও রংধনু অজ-বাংলা কালচারাল সোসাইটি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার বিতরণ করেছে। রংধনুর উদ্যোগে গত ২৯ শে ফেব্রুয়ারি (শনিবার)  সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয় সিডনির বাংলা টাউনখ্যাত লাকেম্বার সিনিয়র সিটিজেন সেন্টারে। বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন রংধনুর বর্তমান প্রেসিডেন্ট ওহাব মিয়া। ঈশিকা এবং অপ্সরা অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলা গানের তালে তালে মনোমুগ্ধকর নৃত্য পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল এমপি টনি বার্ক। এছাড়াও অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নিউ সাউথ ওয়েলসের এমপি মার্ক কুরে এবং কাউন্সিলর নাদিয়া সালেহ, কাউন্সিলর নাজমুল হুদা এবং প্রাক্তন ডেপুটি মেয়র কার্ল সালেহ। ২০১৯ সালের বিভিন্ন পরীক্ষার উপর ভিত্তি করে সাতটি ক্যাটাগরিতে সর্বমোট ৪৫ জনকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন রংধনু পরিবারের সদস্য পলি আহমেদ এবং রানা শরীফ। সহযোগিতায় ছিলেন ছোট্ট বন্ধু আয়ান হক, সানিয়া বিন্তে আসাদ, আরফি হক, ফারহান শফিক এবং রাফসান খন্দকার। অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে  নেপলান (NAPLAN) year 3 এর ক্রেস্ট প্রদান করেন ফেডারেল এমপি টনি বার্ক। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে মনোরম কবিতা আবৃত্তি করেন নুসরাত জাহান স্মৃতি।  তারপর OC ক্যাটাগরির অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন মার্ক কূরে এমপি, সিলেক্টিভ স্কুল স্টুডেন্টদের অ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন কাউন্সিলর নাদিয়া সালেহ এবং কাউন্সিলর মোহাম্মদ নাজমুল হুদা।

NAPLAN year 5 & 7 ক্যাটাগরিতে পুরস্কার বিতরণ করেন কার্ল সালেহ প্রাক্তন ডেপুটি মেয়র। এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন অস্ট্রালবিলট এর কর্ণধার নজরুল ইসলাম। এবারের অনুষ্ঠানটি সাফল্যমন্ডিত করার পেছনে অসাধারণ পরিশ্রম করেন রংধনু পরিবারের অন্যতম সদস্য আব্দুল মোতালেব শামসুজ্জামান শামীম, নাফিস খন্দকার, খন্দকার আহসান প্রিন্স, সাইদুল হক মিটুল, ফারিয়া আহমেদ এবং জোবায়ের রশীদ জামী।

রংধনুর এবছরের টাইটেল স্পন্সর ছিল অস্ট্রালবিলট এবং অন্যতম প্রধান স্পন্সর ছিল সিটি অফ ক্যান্টারবারি ব্যাংকসটাউন। অন্যান্য স্পন্সরদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল ডেল্টা ল্যান্ডস্কেপিং, লিংকার্স রিয়েলষ্টেট, এক্সপ্রেস টেক্স সলিউশন, হাট-বাজার লাক্যাম্বা,  কিডস আর আস ফ্যামিলি ডে কেয়ার, টপ্ আপ প্লাজা, বার্গারস অন ব্রডওয়ে লাকেম্বা, রয়াল সিটি সলিসিটরস, ল্যান্ড এন্ড লিজ রিয়েল এস্টেট, গোল্ডেন ফাইবার অস্ট্রেলিয়া এবং স্টার কিডস। অনুষ্ঠানটির ভিডিওগ্রাফিতে ছিলেন আনিসুর রহমান, ফটোগ্রাফিতে সিদ্দিক এবং সিফাত, ম্যাগাজিন প্রিন্টিংয়ে সহযোগিতা করেন শাহিন এবং খাদ্য সরবরাহে মাকসুদা ফুড ক্যাটারিং। 

ফেডারাল এমপি টনি তার বক্তব্যে সিডনিস্থ বাংলাদেশি কমিউনিটির অবদানের কথা উল্লেখ করেন এবং পুরস্কার বিজয়ী সকলকে এবং তাদের অভিভাবকদের অভিনন্দন জানান। মার্ক কুরে তার বক্তব্যে শিক্ষার গুরুত্বের কথা আলোচনা করেন। অনুষ্ঠানের শেষভাগে মন মাতানো গান পরিবেশন করেন  আশিকুজ্জামান সুজন,  ফারিয়া আহমেদ এবং রংধনু পরিবারের সদস্যরা। সবশেষে রংধনুর সাধারণ সম্পাদক লিংকন শফিকউল্লাহ ধন্যবাদ বক্তব্য প্রদান করেন এবং অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

রংধনুর এবছরের পুরস্কার বিজয়ীদের নাম মেধা তালিকা এবং ক্যাটাগরি অনুযায়ী নিম্নে দেওয়া হলঃ: NAPLAN 2019 YEAR 3 ক্যাটাগরিতে পারিসা জেবিন,  মাহির মিজান,  নাজা খান, ফারদিন ইউসুফ, সেহরাজ ইসলাম,  সিমরা ইসলাম, তাসফিয়া শফিক এবং আয়াস আহসান। OC ক্যাটাগরিতে আরিব শাহরিয়ার, ফারিজা হোসেন, আনিলা রহমান, আরিশা আজহার এবং রোদেলা হোসেন। NAPLAN 2019 year 5 ক্যাটাগরিতে শেখ আব্দুল্লাহ আল দাইয়ান, উনাইসা হোসেন,  মালিহা তাস্নিম।  Selective school test 2019 ক্যাটাগরিতে আবরার রুদ্র ইকবাল, আয়ান আজহার, আলীফ হোসেন সিদ্দিকী, সারহান রাসিন, জারিফ উদ্দিন, নাবিহা নাকিব, নামিরা তাওহিদ, পারিসা আজাদ, রুমাইসা ফারুকী, সাহিবা বিনতে উদ্দিন, শ্রেয়শী সমাদ্দার, সাহিব আলম, আয়ান হারুন, মাহির দাইয়ান, পৃথিবী তাজওয়ার, রেমান তাহসিন কবির এবং মুসাররাত বিনতে হাসান। এছাড়াও ক্রিকেটে রাজ খান, ম্যাথমেটিক অলিম্পিয়াডে নাফিউ হাসান এবং কুরআনে সাদমান রহমান। NAPLAN 2019 YEAR 7 ক্যাটাগরিতে সালিহা তাসনিম এবং সামিয়া ইসলাম।  2019 এইচএসসি মেধা তালিকায় রয়েছেন নিমাত চৌধুরী, মোহাম্মদ জাওয়াদ, ফায়াদ নোমানী, ওয়ানিসা জামান, সাদমান হায়দার, রাফসান খন্দকার এবং নুসরাত সামিয়া। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সিডনিতে স্বাধীনতা দিবস উন্মুক্ত ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ২৯শে মার্চ শুরু

বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবসকে সশ্রদ্ধা ভরে স্মরন করতে বাংলাদেশ ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার্স এসোসিয়েশন তাদের বাৎসরিক টুর্নামেন্ট আগামি ২৯শে মার্চ (রবিবার) সিডনিতে শুরু করবে। বিকাল ৫ টায় উদ্বোধনী খেলায় পুরুষ (দ্বৈত) অংশগ্রহন করবে।

অয়োজক কমিটি জানায়, বরাবরের মতো এবারও ব্যাপক উৎসাহ এবং উদ্দীপনার মাধ্যমে এই টুর্নামেন্ট শুরু হবে যা অস্ট্রেলিয়ার সর্ববৃহৎ বাংলাদেশি ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় রূপ নেবে। অস্ট্রেলিয়ান ন্যাশনাল স্পোর্টস সেন্টার, লাকেম্বার পেরিপার্ক  ইনডোর স্পোর্টস কমপ্লেক্সে আয়োজিত বাৎসরিক এই টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধনী সহ অনুষ্ঠানে স্থানীয় মেয়র, কাউন্সিলর বৃন্দ, স্থানীয় এমপি সহ বিভিন্ন পেশাজীবী ও ক্রীড়া অনুরাগীরা অতিথি থাকবেন। 

এই আয়োজনকে আরো বেশি প্রাণবন্ত ও আনন্দ মুখর করতে এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট কে সি শামিম প্রবাসী কমিউনিটির সবাইকে স্বপরিবারে ও স্ববান্ধবে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এই বছরের টুর্নামেন্ট ফেসবুক লাইভে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে, যা এই টুর্নামেন্ট কে এক অনন্য মাত্রা এবং আরো বেশি উৎকর্ষ করবে বলে আয়োজকরা জানান। ফাইনাল, পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠান আগামী ৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে।