চট্টগ্রাম ক্লাব অস্ট্রেলিয়ার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

গত ২২ ও ২৩ ফেব্রুয়ারী চট্টগ্রাম ক্লাব অস্ট্রেলিয়া, সিডনির বিভিন্ন সংগঠন আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস“ পালন করেছে। 

আয়োজক ক্যাম্পবেলটাউন সিটি কাউন্সিলের আমন্ত্রনে গত ২২ ফেব্রুয়ারী চট্টগ্রাম ক্লাবের সভাপতি শেখ সালাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাদিয়া হক তন্দ্রা এবং ক্লাবের সদস্যরা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা  দিবস উপলক্ষে অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে ক্যাম্পবেলটাউন সিটি কাউন্সিলের মেয়র জর্জ ব্রটিশবিক, কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী, বাংলাদেশ হাই কমিশন অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন ভাষাভাষীর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

২৩ ফেব্রুয়ারী “একুশে একাডেমী অস্ট্রেলিয়া” কর্তৃক আয়োজিত অমর একুশের প্রভাত ফেরীতে ক্লাবের সভাপতি শেখ সালাউদ্দিন, সহ সভাপতি মোহাম্মদ চৌধুরী (ইমরান), সাধারন সম্পাদক সাদিয়া হক তন্দ্রা, নির্বাহী সদস্যসহ পরিবারবর্গ  ভাষা শহীদদের স্মৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এই অনুষ্ঠানে সাদিয়া হক তন্দ্রা একুশে একাডেমী অস্ট্রেলিয়াকে এমন মহতী উদ্যোগে ক্লাবকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। একই দিনে ক্যাম্বেলটাউন বাংলা স্কুল আয়োজিত বিশ্ব ভাষা দিবসের অনুষ্ঠানে ক্লাবের সদস্যরা অংশগ্রহণ করে ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানায়।

নাদেলকে সিডনি প্রবাসী সিলেটিদের সংবর্ধনা

অস্ট্রেলিয়ান প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেছেন, ‘বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সবাইকে অবাক করে দিয়েছে। বাংলাদেশ বৈদেশিক সহায়তা গ্রহণকারী দেশ থেকে এখন বিনিয়োগের অনুকূল ভূমিতে পরিণত হয়েছে। দেশে বিনিয়োগের পরিমাণ ক্রমান্বয়ে বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত প্রবাসীদের বাংলাদেশে তথ্য-প্রযুক্তি, তৈরি পোশাক শিল্পসহ অন্যান্য কর্মসংস্থানমূলক শিল্প-কারখানা স্থাপনে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ৯টায় সিডনিস্থ লাকাম্বা এলাকার একটি হোটেলের হল রুমে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত সিলেটিদের দেয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব নিউ সাউথ ওয়েলস ইনক অস্ট্রেলিয়ার ভাইস প্রেসিডেন্ট নানু মিয়ার সভাপতিত্বে ও উবায়দুল হকের পরিচালনায় তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে সিলেট সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলা হচ্ছে। তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে তৈরি হচ্ছে দেশের প্রথম ইলেকট্রনিক্স সিটি। যা ১৬২ একর জমির ওপর নির্মিত হচ্ছে।

শফিউল আলম নাদেল বলেন, অস্ট্রেলিয়ার বাজারে বাংলাদেশে তৈরি পোশাকের বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। দিন দিন অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের চাহিদা বাড়ছে। ওয়ান স্টপ সার্ভিস প্রদানের মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগের পদ্ধতি ও আনুষ্ঠানিকতা সহজ করা হয়েছে। এখন এক খানেই সকল কাজ সম্পন্ন করা সম্ভব। অস্ট্রেলিয়ার প্রবাসীরা চাইলেই এসব প্রকল্পে বিনিয়োগ করতে পারেন। এক্ষেত্রে প্রবাসীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে সরকার প্রস্তুত রয়েছে।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত প্রবাসীরা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জালালাবাদ এসোসিয়েশন অব নিউ সাউথ ওয়েলস ইনক অস্ট্রেলিয়ার সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান, কার্যনির্বাহী সদস্য শাহ আলম, সাংবাদিক জুমান হোসাইন, মিকু চৌধুরী, মাসুদুর রহমান শ্যমল প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি