সিডনিতে বসন্তমেলার পরিবর্তিত তারিখ আগামী ৭ মার্চ

সিডনিতে মহিলা সংগঠন ফাগুন হাওয়া আয়োজিত ৮ই ফেরুয়ারি ও ২২ ফেব্রুয়ারি ওয়াইলী পার্কে অনুষ্ঠিতব্য বসন্ত মেলা বৃষ্টিজনিত কারনে পিছিয়ে আগামী ৭ মার্চ (শনিবার) অনুষ্ঠিত হবে। আয়োজক কমিটির পক্ষে তিশা তানিয়া, নাসরিন পলি ও সানজিদা আক্তার অপ্রত্যাশিত আবহাওয়ার কারনে মেলার তারিখ দুইবার পিছিয়ে দেয়ায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বসন্তমেলার টাইটেল স্পনসর অস্ট্রাল বিল্ট।

এর আগে গত ৪ জানুয়ারি (শনিবার) এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানানো হয়, এবার বড়সর পরিসরে সম্পূর্ণ  মেয়েদের দ্বারা পরিচালিত হবে “ফাগুন মেলা”। হরেক রঙের ফুলের সমারোহে, আমরা সবাই  চারুকলার স্বাদ পাবো ফাগুন মেলার আল্পনার ঢঙে। রমনীরা আসবে হলুদ শাড়ী পড়ে, খোপায় ফুল গুজে। থাকছে নাচ গান কবিতা , ফ্যাশন সো, ডিজে সহ বাংলাদেশ থেকে আসছেন জনপ্রি়য় ফোক শিল্পী। থাকছে ফেস পেইন্টিং, বেলুন টুইস্টিং, ক্লাউন ফর কিডস সহ আরো অনেক আকর্ষণীয় আয়োজন সহ লোভনীয় সব পিঠা ও খাবারের দোকান। মেলাতে কোন প্রবেশ মূল্য থাকবে না।

সাংবাদিক সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ফাগুনের মেলা হচ্ছে রঙর মেলা তাই সূর্যের আলো থাকতে থাকতেই চলে আসুন, আমরা থাকবো আপনাদের অপেক্ষায় মেলার মাঠ। মেলার সারা মাঠ সাজানো থাকবে রঙ বেরঙের ফুলে আর থাকবে দুটো ফটো বুথ সাথে আকর্ষণীয় সেলফি ফ্রেম।

যৌথ কাব্যগ্রন্থ “স্বপ্নের সাতকাহন” এর মোড়ক উম্মোচন

বাংলা একাডেমী কর্তৃক আয়োজিত বই মেলায় মোড়ক উম্মোচিত হলো প্রবাসী কবি সাংবাদিক এবং সম্পাদক নাসরিন আক্তার মৌসুমী র যৌথ কাব্যগ্রন্থ “স্বপ্নের সাতকাহন”। বারোটি দেশে বসবাসরত চব্বিশজন কবিকে নিয়ে বইটি সম্পাদনা করেছেন কুয়েত প্রবাসী নাসরিন আক্তার মৌসুমী।

একুশে গ্রন্থমেলায় ২০২০ মোড়ক উন্মোচন হলো “স্বপ্নের সাতকাহন” দ্বিতীয় খন্ড। স্বপ্নের সাতকাহন প্রথম খন্ড ২০১৯ এ বেশ পাঠকপ্রিয়তা পাওয়ায় এবার নিয়ে এলো দ্বিতীয় খন্ড। “স্বপ্নের সাতকাহন”কাব্যগ্রন্থটি র কবিতাগুলো বেশ সহজ-সরল। যা কিনা পাঠকের হৃদয়ে কবিতাগুলো জায়গা করে নিবে। প্রবাসী কবি’রা কাজের ফাঁকফোকরে যতটুকু সময় পান সেই সময়টুকুতে সাহিত্য চর্চা করে থাকেন। আর এই প্রবাসী কবিদেরকে নিয়েই এই স্বপ্নের সাতকাহন।

উক্ত মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মিসেস আছিরন বেগম, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ। দিলু রোকিবা, প্রাক্তন শিক্ষিকা মোহাম্মদপুর উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান (বাংলাদেশ বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুল), বিশিষ্ট কবি এবং লেখক। রওশন আরা রুশো, কবি ও লেখক, পরিচালক (অবঃ), পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর, স্বাস্থ্য ও পঃক মন্ত্রনালয়। লিজি আহমেদ, মাস্টার্স, ইডেন কলেজ, ঢাকা, কবি, লেখক এবং সংগীত শিল্পী। রোকেয়া দীপা, কবি, লেখক এবং সাংবাদিক, আমেরিকান প্রবাসী। পলক রহমান, অবসর প্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা, বাচিক ও সংগীত শিল্পী এবং গীতিকার, বিটিভি এবং বাংলাদেশ বেতার, প্রাক্তন ডেপুটি রেজিস্ট্রারার ‘বাউট’- ইউনিভার্সিটি, কাদিরাবাদ, প্রাক্তন জিএম, মাইটিভি, নির্বাহী সম্পাদকঃ ভোরের তারা। প্রফেসর লুৎফর রহমান জয়, লেখক গবেষক সম্পাদক পরিচালক, নর্দান ইউনিভার্সিটি,  প্রিন্সিপাল গবেষক, শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ ইউথ ডেভালাফমেন্ট, সম্পাদক, বঙ্গনিউজ। হাসনাইন সাজ্জাদী, বিজ্ঞান কবি,সাংবাদিক ও বিজ্ঞানবাদের দার্শনিক।

সেই সাথে আরও অনেক বিশিষ্ট জনেরা উপস্থিত ছিলেন স্বপ্নের সাতকাহন বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের দিন।

“স্বপ্নের সাতকাহন” যৌথ কাব্যগ্রন্থের সম্মানিত কবিরা হলেনঃ কুয়েতঃ (মান্যবর রাষ্ট্রদূত) এস এম আবুল কালাম, বাংলাদেশঃ দিলু রোকিবা, বাংলাদেশঃ পলক রহমান, বাংলাদেশঃ লিজি আহমেদ, সৌদি আরবঃ মুহাম্মদ ইসমাইল হুসাইন, জাপানঃ আয়েশা সিদ্দিকা পাঠান, সৌদি আরবঃ এ আই টিপু, অস্ট্রেলিয়াঃ রোকেয়া সুলতানা লিলি, সৌদি আরবঃ মু.এনামুল হক সরদার, দক্ষিণ আফ্রিকাঃ মোঃ শেখ মাসিদ, মালয়েশিয়াঃ খন্দকার মোঃ আনিসুর রহমান, ভারতঃ স্বপ্না পালিত, অস্ট্রেলিয়াঃ নাইম আবদুল্লাহ, আমেরিকাঃ রোকেয়া দীপা, বাংলাদেশঃ আলীউজ্জামান, লন্ডনঃ শাহারা খান, মালয়েশিয়াঃ মোহাম্মদ জামাল হোসাইন, ভারতঃ সিমলী চৌধুরী, সাউথ আফ্রিকাঃ সাইফুল ইসলাম রনি, সাউথ আফ্রিকাঃ জোবায়ের ছিদ্দিক, সাইপ্রাসঃ এস আই জনি তালুকদার, ইতালিঃ সৈয়দা ইয়াসমিন, কুয়েতঃ সেলিম রেজা, কুয়েতঃ নাসরিন আক্তার মৌসুমী।

কবি সাংবাদিক নাসরিন আক্তার মৌসুমী এ পর্যন্ত সম্পাদনা করেছেন তিনটি বই_স্বপ্নের সাতকাহন ( প্রথম খন্ড) পিদিম এবং “স্বপ্নের সাতকাহন “(দ্বিতীয় খন্ড)। খুব শীঘ্রই নতুন আরও একটি বই প্রকাশ হতে যাচ্ছে একশ তম জন্মদিনে একশ জন কবিকে নিয়ে একশ টা কবিতা নিয়ে শেখ মুজিবর রহমানকে  উৎসর্গ করে যৌথ কাব্যগ্রন্থ “বাহান্ন থেকে একাত্তর।” সুস্থ ধারায় যেন সাহিত্যে এগিয়ে যেতে পারে এই প্রত্যাশায় প্রবাসী কবি সাংবাদিক নাসরিন আক্তার মৌসুমী কাজ করে যাচ্ছেন বাংলা সাহিত্যের জন্য।