ভালোবাসা দিবসে স্বদেশ এন্টারটেইনমেন্ট’র নাটক শিফট

টিভি নাটক নির্মাণের ধারাবাহিকতায় এবার স্বদেশ এন্টারটেইনমেন্ট-এর ব্যানারে প্রযোজক ফয়সাল আজাদের প্রযোজনায় নির্মিত হলো ‘শিফট’ একক নাটক। নাটকটি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষ্যে নির্মিত হয়েছে। নাটকটির মূলগল্প অভিনেতা আফরান নিশো। রচনা করেছেন ইসতিয়াক অয়ন। পরিচালনা করেছেন সঞ্জয় সমাদ্দার।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে, স্বামী-স্ত্রী দুজনেই একটি প্লাস্টিক ফ্যাক্টরিতে কাজ করে। দুজনের আয়ে যা পায় সেটা দিয়েই চলে তাদের সংসার। গরীব হলেও তাদের কোন চাওয়া পাওয়া নেই। বেশ সুখে শান্তিতেই বসবাস করছিলেন তারা। হঠাৎ করে কর্মরত অবস্থায় সেই ফ্যাক্টরির বিল্ডিংয়ে ফাটল থাকায় একটা সময় সেটা ধ্বসে পড়ে প্রাণ যায় অনেকের। এখানেই শেষ নয়, সেখান থেকে শুরু হয় নতুন এক গল্প। এমনই এক গল্পে নির্মিত হয়েছে বিশেষ এই নাটক । আর সেই গল্পে স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো ও মেহজাবিন।

একটি দৃশ্যে এক চোখ বন্ধ, অন্যটি খানিকটা খোলা। বন্ধ চোখ আঘাতে ফুলে গেছে। মুখের নানা জায়গায় ক্ষত, ছোপ ছোপ রক্ত। ধুলাবালি মাখা অবস্থায় দেখা যাবে দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরীকে।

নাটকটি সম্পর্কে প্রযোজক ফয়সাল আজাদ জানান, “প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘স্বদেশ এন্টারটেইনমেন্ট’ সব সময় চেষ্টা করে নতুন কিছু করার জন্য। আর তাই এবার বেছে নেয়া হয়েছে একটি সুন্দর নাটকের গল্প। আমরা বরাবরের মতই আশাবাদী যে দর্শক নাটকটিকে পছন্দ করবে। কারণ নাটকটিতে এমন কিছু মুহূর্ত আছে যা যে কোনো মানুষের হৃদয়কে নাড়া দিবে। শুধু তাই নয় নাটকটি দেখলে আমাদের রানা প্লাজার ট্র্যাজেডির কথা মনে করিয়ে দিবে।” 

পরিচালক সঞ্জয় সমাদ্দার বলেন, ‘ভালোবাসার গভীরতা মাপার একক হলো—দুঃসময়। মানুষ কোন সময় তার ভালোবাসার মানুষকে সবচেয়ে বেশি অনুভব করে? সম্ভবত মৃত্যুর সময়। ভালোবাসার কাছে মৃত্যুও হার মানে। ভালোবাসার এই জিতে যাওয়া গল্প নিয়ে গড়ে উঠেছে এই নাটকের গল্প।’

নাটকটিতে মেহজাবিন চৌধুরীর বিপরীতে অভিনয় করেছেন আফরান নিশো। এছাড়াও অভিনয় করেছেন নরেশ ভূঁইয়া, আশরাফুল আলম প্রমুখ। জানা গেছে, নাটকটি স্বদেশ এন্টারটেইনমেন্ট-এর ইউটিউব চ্যানেলে মুক্তি দেয়া হবে।

সিডনি প্রবাসী কাজী সুলতানা শিমির বই প্রকাশনা অনুষ্ঠিত

গত ২ ফেব্রুয়ারি (রোববার) জাতীয় প্রেসক্লাবে প্রবাসী লেখক, প্রবন্ধিক, সাংবাদিক এবং অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের সহ-সভাপতি কাজী সুলতানা শিমির দুটি প্রবন্ধ সংকলনের বই, ‘শুরু হোক পথ চলা’ ও ‘নিজেকে প্রশ্ন করুন‘ এর প্রকাশনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের আয়োজনে প্রকাশনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি মো. রহমত উল্লাহ্। বিটিভি তারকা হাসনা হেনার সঞ্চালনায় সন্ধ্যা ছটায় অনুষ্ঠান শুরুর পর শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রেলওয়ের  সাবেক মহাপরিচালক কাজী রফিকুল আলম।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কিত করেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ সভাপতি বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল, হেলেনা জাহাঙ্গীর চেয়ারম্যান জয়যাত্রা টিভি, আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী সাবেক ভি সি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিশিষ্ট নাট্যজন গোলাম মোস্তাফা। নুশাবা রহমান আমন্ত্রিত অতিথিদের ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানানোর পর কবিতা আবৃত্তি করেন বিশিষ্ট আবৃত্তি শিল্পী মাহিদুল ইসলাম মাহী।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকী, কাজী সুলতানা শিমির লেখা প্রবন্ধ সংকলন, ‘শুরু হোক পথ চলা’ এবং ‘নিজেকে প্রশ্ন করুন’ বই দুটির প্রবন্ধ থেকে উদ্ধৃতি দিয়ে বিশদ পর্যালোচনা করেন। তিনি লেখকের লেখনীর নান্দনিকতা ও বাস্তবধর্মী লেখারও প্রশংসা করেন। অন্যান্য অতিথিবৃন্দ তাদের শুভেচ্ছা বার্তায় কাজী সুলতানা শিমির লেখা প্রবন্ধ সংকলন দুটির পাঠক প্রিয়তা ও বহুল প্রচার কামনা করেন।

অনুষ্ঠানে কাজী সুলতানা শিমি বই প্রকাশনায় সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। লেখকের পক্ষ থেকে অতিথিদের উপহার প্রদান করা হয়। সবশেষে অস্ট্রেলিয়া-বাংলাদেশ প্রেস ও মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি মো. রহমত উল্লাহ্ উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

কাজী সুলতানা শিমি আলোকিত নারী হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন বাংলাদেশের বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভি, জন্মভূমি টেলিভিশন অস্ট্রেলিয়া ও সিডনী থেকে প্রকাশিত স্বাধীন কণ্ঠ পত্রিকা থেকে। বিভিন্ন পত্রিকায় ইতোমধ্যে প্রকাশিত প্রবন্ধ সংকলন ‘শুরু হোক পথ চলা’ ও ‘নিজেকে প্রশ্ন করুন’ প্রবন্ধ সংকলন দুটি পাওয়া যাবে একুশে বইমেলা ২০২০-এর বাংলা একাডেমি চত্বরে, ১২৪ বাংলানামা স্টলে।