সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদের উপর হামলা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে সিডনিতে সভা

গত ১৫ ডিসেম্বর (রবিবার) সন্ধ্যায় সিডনির লাকেম্বায় দৈনিক সংগ্রামের ঢাকাস্থ অফিসে হামলা, ভাংচুর এবং সম্পাদক আবুল আসাদকে হেনস্থা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে একটি প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়। সিডনি থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশী কমিউনিটির মুদ্রন ও অনলাইন পত্রিকা সুপ্রভাত সিডনি’র উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রতিবাদ সভায় স্থানীয় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ এবং প্রবাসী নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, কলমের উপর যারা পেশীশক্তির জোরে দখল প্রতিষ্ঠা করতে চায় তাদের মাঝে সভ্যতা ও মননশীলতার বিন্দুমাত্রও অবশিষ্ট নেই। তারা আরও বলেন, বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত আদর্শ ও উদ্দেশ্য গুলোকে ছিনতাই করে তথাকথিত চেতনা প্রতিষ্ঠার নামে মূলত বর্বরতাই চর্চা করার অন্যতম প্রকাশ হলো একজন পত্রিকা সম্পাদকের উপর এই ধরনের ঘৃণ্যতম আক্রমন। বক্তাদের মতে, যারাই এই ফ্যাসিবাদী উগ্র চেতনাজীবি হিসেবে ঘৃনা ও বিভেদের আহবান জানায় এবং সহিংসতার চর্চা করে, দেশের ভেতরে ও বাইরে সব ক্ষেত্রেই তাদেরকে সামাজিকভাবে বয়কট করা একজন সচেতন ও সভ্য বাংলাদেশী মানুষের জন্য আবশ্যকীয় কর্তব্য।

এই প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সংগ্রাম সম্পাদক আবুল আসাদের জৈষ্ঠ্য পুত্র এবং সিডনি প্রবাসী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক শিবলী আবদুল্লাহ। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, কোন সংবাদ কিংবা লেখার কারনে যদি অপরাধ হয়েও থাকে তাহলে তার প্রতিকার করার জন্য সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া রয়েছে। কিন্তু সেই পথে না গিয়ে গায়ের জোরে একজন বয়োবৃদ্ধ ও অসুস্থ সম্পাদকের উপর দল বেঁধে চড়াও হওয়ার ঘটনা কোন সভ্য সমাজে ঘটে না। কেবলমাত্র আদিম ও বর্বর সমাজেই এমন ঘটনার পৃষ্ঠপোষকতা করা হয়। দেশের মুক্তিযুদ্ধ যেসব আদর্শের ভিত্তিতে পরিচালিত হয়েছিলো, তার মাঝে একটি ছিলো মানবিক সম্মান। বর্তমান বাংলাদেশে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে, তারা মূলত বাস্তবে মুক্তিযুদ্ধের প্রতিটি আদর্শের বিরোধী আচরনই করে থাকে।

সুপ্রভাত সিডনির সম্পাদক ড. ফারুক আমিনের সঞ্চালনায় এই প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন পত্রিকাটির প্রধান সম্পাদক আবদুল্লাহ ইউসুফ শামীম। প্রতিবাদ সভায় সহমর্মিতা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সিডনির আরব কমিউনিটির বিশিষ্ট ধর্মীয় নেতা শায়খ রিদওয়ান আককাওয়ি। এছাড়াও সিডনির বাংলাদেশী কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মো. দেলোয়ার হোসেন, লিয়াকত আলী স্বপন, মনিরুল হক জর্জ, ড. হুমায়ুর চৌধুরী রানা, মুসলেহউদ্দীন হাওলাদার আরিফ, সাব্বির হক, ইব্রাহিম খলিল মাসুদ, মাহমুদ আলম, হাবিবুর রহমান, জাকির আহমেদ প্রমুখ।  

উল্লেখ্য গত ১৩ ডিসেম্বর স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় দেশের প্রাচীনতম পত্রিকা দৈনিক সংগ্রামের ঢাকাস্থ অফিসে মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চ নামক একটি সংগঠনের ব্যানারে কিছু দুর্বৃত্ত বিভিন্ন আসবাবপত্র ও কম্পিউটার ভাংচুর করে এবং সম্পাদক আবুল আসাদকে টেনে হিঁচড়ে রাস্তায় নিয়ে এসে উপস্থিত টিভি ক্যামেরার সামনে একটি প্রকাশিত সংবাদের জন্য ক্ষমা চাওয়ানোর চেষ্টা করে। পরে বায়োবৃদ্ধ এই প্রবীন সম্পাদক ও বুদ্ধিজীবি লেখককে পুলিশ গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। পরদিন তাকে ডিজিটাল সাইবার সিকিউরিটি আইনে রাষ্ট্রদ্রোহীতার মামলায় আসামি করে তিন দিনের পুলিশ রিমান্ডে পাঠানো হয়।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s