সিডনিতে যুবদলের উদ্যোগে দলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

সিডনিতে বেলুন এবং কবুতর উড়িয়ে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের পর এক আলোচনা সভা গত ২৭ অক্টোবর (রবিবার) সিডনির লাকেম্বাস্থ একটি ফাংশন সেন্টারে  অনুষ্ঠিত হয়।  আলোচনা সভায়  বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানানো হয়। বাংলাদেশ থেকে টেলি কনফারেন্সে শুভেছা বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি সাইফুল ইসলাম নিরব।

জাতীয়তাবাদী যুবদল অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি ইয়াসির আরাফাত সবুজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার প্রধান উপদেষ্ঠা ও সাবেক আহবায়ক মোঃ দেলোয়ার হোসেন, প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সভাপতি মোঃ মোসলেহ উদ্দিন হাওলাদার আরিফ, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলী স্বপন, সিনিয়র সহ সভাপতি কুদরত উল্লাহ লিটন, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ নাসিম উদ্দিন আহম্মেদ, সহ সভাপতি মোবারক হোসেন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ইন্জিনিয়ার কামরুল ইসলাম শামীম, স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি এ এনএম মাসুম, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ শিবলু প্রমুখ।                      

যুবদল অস্ট্রেলিয়ার সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ জাকির হোসেন রাজুর পরিচালনায় বিশেষ বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুবদলের সাধারন সম্পাদক খাইরুল কবির পিন্টু, স্বেচ্ছাসেবকদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জুমান হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জাবেল হক জাবেদ, নিউ সাউথ ওয়েলস বিএনপির সভাপতি অনুপ আন্তনী গোমেজ, এস এম রানা সুমন, অসীত গোমেজ, দিলোয়ার হোসেন, এস এম খালেদ, মোঃ ফরিদ আহম্মেদ, শফিকুল ইসলাম, গোলাম রাব্বানী শুভ, আব্দুল করিম, গোলাম রাব্বানী, আরিফুল ইসলাম, পংকজ বিশ্বাস, মাসুম বিল্লাহ, শামছুল আরেফিন রিয়াদ, মতিয়ার রহমান, হাবিব মিয়া, শাহ হাছিবুল কবির নাঈম, ওয়ারিস মাহমোদ প্রমূখ। 

 বক্তারা বলেন, তারেক রহমানকে চক্রান্ত জালে আটকাতে চলছে  ষড়যন্ত্র। আওয়ামীলীগ সরকার ঢাকা শহরকে এখন ক্যাসিনো শহরে পরিনত করেছেন।  কিন্তু বেগম খালেদা জিয়াকে অবৈধভাবে ২ কোটি টাকার মিথ্যা মামলা দিয়ে বন্দি করে রেখেছেন। তাকে অবিলম্বে  মুক্তি না দিলে প্রবাস থেকে বৃহত্তর আন্দোলনে মাধ্যমে বেগম জিয়াকে মুক্ত করার সংকল্প করেন।

‘স্বাধীন কন্ঠ’পত্রিকার বর্ষপূর্তি উদযাপিত

গত ২৭ অক্টোবর (রবিবার) সন্ধ্যায় ব্যাংকসটাউনের লিবার্টি প্যালেসে অস্ট্রেলিয়া থেকে প্রকাশিত বাংলা পত্রিকা ‘স্বাধীন কন্ঠ’ তাদের চতুর্থ বর্ষপূর্তি পালন করে।  শুভজিত ভৌমিকের সঞ্চালনায় বর্ষপূর্তির এই অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী আপেল মাহমুদ।

অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান শুরুর পর স্থানীয় শিল্পী মিঠু ও তার দল গান পরিবেশন করে। স্বাধীন কন্ঠ পত্রিকার সম্পাদক মিজানুর রহমান সুমন তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, দেশ থেকে হাজার মাইল দূরে এসে বাংলা সংস্কৃতির চর্চায় একটি পত্রিকার কোনো বিকল্প নেই। দেশের শত বিভক্তির মাঝেও স্বাধীন কন্ঠ পুরোপুরি নিরপেক্ষ থাকার চেষ্টা করেছে। তিনি স্বাধীন কন্ঠের সাথে শুধু বাংলাদেশীই নয় পাশাপাশি উপমহাদেশের অন্যান্য কম্যুনিটির সম্পৃক্ততার কথাও উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে পত্রিকার পক্ষ থেকে তাদের নিয়মিত লেখক নির্মল পাল, নাইম আবদুল্লাহ, জুম্মন হোসেন, কাজী সুলতানা সিমি ও বেলাল ঢালীকে সম্মাননা জানানো হয়। নাইম আবদুল্লাহর পক্ষে ক্রেস্ট গ্রহন করেন সাংবাদিক নেতা আবদুল মতিন। লেখকদের ক্রেস্ট প্রদান করেন স্বাধীন কন্ঠ মিডিয়ার চেয়ারম্যান কাজী এন সাফা আলমগীর ও কাজী আরমান।

এরপরে লেবার পার্টির এমপি ও শ্যাডো মিনিস্টার জিহাদ দীপ, কাউন্সিলর শাহে জামান, কাউন্সিলর মাসুদ চৌধুরী সহ স্বাধীন কন্ঠ পরিবারের কাজী আরমান, কাজী আলমগীর ও মিজানুর রহমান সুমন স্পন্সরদের সম্মাননা প্রদান করেন। অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশী কম্যুনিটির বিভিন্ন পেশার পাঠকরা তাদের মতামত তুলে ধরা হয়।

বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠান এমপি টনি বার্ক ও বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।  অনুষ্ঠানে স্পন্সর সহ উপস্থিত অতিথিদের আন্তরিক  শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বক্তব্য রাখেন স্বাধীন কন্ঠের প্রেসিডেন্ট কাজী আরমান ও চেয়ারম্যান কাজী এন সাফা আলমগীর। তারপর উপস্থিত সকলকে নিয়ে বর্ষপূর্তি উপলক্ষে কেক কাটা হয়। উল্লেখ্য প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে সকল শুভানুধ্যায়ী ও স্পন্সরদের সাথে নিয়ে নিয়মিত বর্ষপূর্তী পালন করে আসছে স্বাধীন কন্ঠ পরিবার।